টস বাতিলের কথা ভাবছে আইসিসি

সুপ্রভাত ক্রীড়া ডেস্ক

বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের অবস’া ও আরও কিছু বিষয় নিয়ে আগামী ২৮ ও ২৯ মে মুম্বাইয়ে আলোচনা টেবিলে বসবে আইসিসি ক্রিকেট কমিটি। যেখানে ২০১৯-২১ মৌসুমের চ্যাম্পিয়নশিপের জন্য বেশ কয়েকটি পরিবর্তন সুপারিশ করা হবে। সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য ব্যাপার হচ্ছে, স্বাগতিক দল হওয়ার সুবিধা কমাতে টস বাতিলের ব্যাপারে আলোচনা করবে কমিটি। খবর বাংলা ট্রিবিউন।
১৮৭৭ সালে শুরু হওয়ার পর থেকে প্রত্যেক টেস্টে মুদ্রা দিয়ে টস করে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় কোন দল প্রথমে ব্যাটিং বা বোলিং করবে। বর্তমানে টস জেতা মানেই ম্যাচ অনেকটা জিতে যাওয়া। কারণ স্বাগতিক দল তাদের নিজেদের মতো করে পিচ তৈরি রাখে। আর এটা থামাতেই পরের সভায় সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। এতে টেস্ট আরও প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ হবে আশা কমিটির। নিয়ম যদি পাল্টে যায়, তাহলে সফরকারী দল সিদ্ধান্ত নেবে তারা আগে ব্যাটিং না বোলিং করবে।
ক্রিকইনফো কমিটির বরাত দিয়ে বলেছে, ‘টেস্টের পিচ প্রস্তুতিতে স্বাগতিক দলের হস্তক্ষেপের মাত্রা এখন এত বেশি যে, সেটা গুরুতর পর্যায়ে গিয়ে পৌঁছেছে। কমিটির একাধিক সদস্য বিশ্বাস করেন যে প্রত্যেক ম্যাচে সফরকারী দলকে স্বয়ংক্রিয়ভাবে টস দেওয়া উচিত, যদিও কমিটির কয়েকজন সদস্য এই ব্যাপারে তাদের মত জানায়নি।’
টস বাতিলের পরীক্ষা এরই মধ্যে হয়ে গেছে ইংলিশ ক্রিকেটে। ২০১৬ সাল থেকে কাউন্টি চ্যাম্পিয়নশিপে মুদ্রার টস হয় না, অতিথি দলকে সিদ্ধান্ত নেওয়ার ভার দেওয়া হয়। এর ফলাফলও চোখে পড়ার মতো। ইসিবির রিপোর্টে জানা গেছে- ২০১৫ সালে যেখানে ৭৪ শতাংশ ম্যাচ চার দিনে গেছে, সেখানে ২০১৬ সালে গেছে ৮৫ শতাংশ। ২০০৯ সালের পর যেটা ছিল সর্বোচ্চ। ক্রিকইনফো