জঙ্গিবাদ মোকাবিলায় সামাজিক আন্দোলন গড়ে তোলা প্রয়োজন

বিজ্ঞপ্তি

মানুষের জন্য ফাউন্ডেশন (এমজেএফ) এর সহায়তায় ঘাসফুল বাসত্মবায়নাধীন ইয়েস প্রকল্প আয়োজিত ‘জঙ্গিবাদের প্রভাবক ও প্রেড়্গিত বিশেস্নষণ’ শীর্ষক থানা পর্যায়ে এক কর্মশালা গতকাল মঙ্গলবার উপ-পুলিশ কমিশনার (উত্তর) এর সম্মেলন কড়্গে অনুষ্ঠিত হয়। ঘাসফুলের প্রশাসন ও মানবসম্পদ বিভাগের উপ-পরিচালক মফিজুর রহমান এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত কর্মশালায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপসি’ত ছিলেন চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ (সিএমপি) এর উপ-পুলিশ কমিশনার (উত্তর) বিজয় বসাক। কর্মশালায় স্বাগত বক্তব্য ও প্রকল্পের ধারণাপত্র উপস’াপন করেন ইয়েস প্রকল্পের সমন্বয়কারী অমর সাধন চাকমা। প্রধান অতিথি বলেন, ‘জঙ্গিবাদ আজ আর কোনো নির্দিষ্ট দেশের সমস্যা নয়। এটি আজ বহুজাতিক ও বহুমাত্রিক সমস্যা। পুরো বিশ্ব আজ জঙ্গিবাদের ভয়াল থাবার শিকার। এটি কোনো ধর্মীয় বা জাতিগত সমস্যা নয়। প্রতিটি দেশের সরকার এ জঙ্গিবাদের বিরম্নদ্ধে কার্যক্রম হাতে নিয়েছে। আমরাও এই জঙ্গিবাদের বিরম্নদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতি গ্রহণ করেছি এবং সর্বত্র এ ব্যাপারে সতর্ক দৃষ্টি রাখছি। ইতিমধ্যে বাংলাদেশ পুলিশ জঙ্গিবাদের বিরম্নদ্ধে বেশ কিছু সক্রিয় অপারেশন পরিচালনা করেছে, যা প্রশংসার দাবিদার।’ সভাপতির বক্তব্যে মফিজুর রহমান বলেন, ‘আমরা সকলেই একটি শানিত্মপূর্ণ সমাজ ও দেশ চাই। আর এই শানিত্ম নিশ্চিত করতে হলে দল, মত, জাতি নির্বিশেষে সকলকে একযোগে জঙ্গিবাদ বিরোধী সকল কর্মকা-ে কাঁেধ কাঁধ মিলিয়ে কাজ করতে হবে। এই ব্যাপারে সর্বপ্রথম যুব সমাজকে সচেতন করতে হবে ও এগিয়ে আসতে হবে’। বক্তারা বলেন, ‘জঙ্গিবাদ মোকাবিলায় সামাজিক আন্দোলন গড়ে তোলা প্রয়োজন’।

এ সময় উপসি’ত ছিলেন সহকারী পুলিশ কমিশনার (উত্তর) দেবদুত মজুমদার, জেলা তথ্য কর্মকর্তা সাইদ হাসান, চান্দগাঁও ও পাঁচলাইশ থানার অফিসার ইনচার্জ আবুল কালাম ও আবুল কাশেম, কাউন্সিলর সাহেদ ইকবাল বাবু , কফিল উদ্দিন খান এবং ইসলামিক ফাউন্ডেশনের সহকারী পরিচালক মো. মনিরম্নজ্জামান।

অনুষ্ঠানটির সঞ্চালনায় ছিলেন ঘাসফুল সেকেন্ড চান্স এডুকেশন (এসসিই) প্রকল্পের ট্রেইনার জোবায়দুর রশীদ ও ইয়েস প্রকল্পের ইয়ুথ ভলান্টিয়ার নিবেদিতা পাল।