থানচিতে বিজিবি’র অভিযান

চোখ বাঁধা অবস্থায় উদ্ধার অপহৃত পাড়া কার্বারি

নিজস্ব প্রতিনিধি, বান্দরবান

বিজিবি’র অভিযানে বান্দরবানের থানচিতে অপহরণের ৬ দিন পর পাড়া প্রধান (কার্বারি) আথুই মং মারমাকে (৫৫) উদ্ধার করা হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার অপহৃত কার্বারিকে উদ্ধার করা হয়।
আইনশৃঙ্খলা বাহিনী জানায়, জেলার থানচি উপজেলার তীন্দু ইউনিয়নের মিয়ানমার সীমানত্মবর্তী জিন্না পাড়া, উহ্লাচিং পাড়াসহ আশপাশের পাহাড়ি অঞ্চলগুলোতে অভিযান চালায় বলিপাড়া ব্যাটেলিয়ানের বিজিবি সদস্যরা। এসময় চোখ বাঁধা অবস’ায় পাহাড়ি ঝিড়ির পাশ্ববর্তী এলাকা থেকে তুংখং পাড়া প্রধান (কার্বারি) আথুই মং মারমাকে উদ্ধার করে বিজিবি। তবে বিজিবির অবস’ান টের পেয়ে অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যাওয়ায় কাউকে আটক করা যায়নি।
ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলিপাড়া বিজিবি ব্যাটেলিয়ানের
অধিনায়ক লে. কর্নেল মো. হাবিবুল হাসান জানান, গত শনিবার (১২ মে) থানচি উপজেলার সদর ইউনিয়নের তুংখং পাড়া থেকে অস্ত্রের মুখে তুংখং পাড়া কার্বারি আথুই মং মারমা’কে অপহরণ করেছিল সন্ত্রাসীরা। অপহরণের পর টানা অভিযানের মুখে সাত দিনের মাথায় অপহৃত কার্বারিকে সীমানত্মবর্তী উহ্লাচিং পাড়া পাহাড়ের অরণ্য থেকে কার্বারিকে চোখ বাঁধা অবস’ায় উদ্ধার করতে সড়্গম হয়েছি। তবে খাওয়া দাওয়ার সমস্যা এবং দীর্ঘ ছয়দিন পায়ে হাঁটার কারণে কার্বারির শারীরিকভাবে কিছুটা দুর্বল হয়ে পড়েছে। বিজিবি ব্যাটেলিয়ানে তাকে চিকিৎসাসেবা দেয়া হচ্ছে।
প্রসঙ্গত গত শনিবার থানচি উপজেলার সদর ইউনিয়নের তুংখং পাড়া এলাকা থেকে অস্ত্রের মুখে মিয়ানমারের বিচ্ছিন্নতাবাদী গ্রম্নপ আরাকান আর্মি (এ.এ) সন্ত্রাসীরা তুংখং পাড়া প্রধান (কার্বারি) আথুই মং মারমাসহ ৩ জনকে অপহরণ করে নিয়ে যায়। অপহরণের পরের দিন সন্ত্রাসীরা কার্বারীর স্ত্রী আদিমা মারমা (৪২) এবং বোন মেনু প্রম্ন মারমাকে (২২) ছেড়ে দেয়।