ভেলুয়ার দীঘি

চারপাশে দখল হয়ে যাচ্ছে ভেলুয়ার দীঘি

Untitled-1

পাহাড়তলী রেলওয়ে স্টেশনের পশ্চিমে এবং পাহাড়তলী বাজারের উত্তরে বিশাল এক দীঘি রয়েছে রেলওয়ের মালিকানাধীন। ভেলুয়া সুন্দরীর নামকরণে এই ভেলুয়ার দীঘিটি চারপাশ থেকে দেখার কোনো সুযোগ নেই। শুধুমাত্র উত্তর-পূর্ব কোণের একটি প্রান্ত থেকে বিশাল এই দীঘির সৌন্দর্য উপভোগ করা যায়। দীঘির ভেতরে বড়শি প্রতিযোগিতার জন্য তৈরি করা অসংখ্য মাচা রয়েছে। দীঘিটির পশ্চিমপাড়ে স্থানীয় বসতি ও পাহাড়তলী বাজারের একাংশ রয়েছে। ডিটি রোডের ওই প্রান্ত দিয়ে দীঘিটি দেখার সুযোগ নেই। উত্তর পাড়জুড়ে রয়েছে অবৈধ বসতি। দীঘির দক্ষিণ পাড়ে পাহাড়তলী বাজার। বাজারের দোকানগুলো পাড় অতিক্রম করে পানির ভেতর পর্যন্ত চলে এসেছে। আর বাজারের অনেক বর্জ্য ফেলা হচ্ছে এই দীঘির পানিতে। পূর্বদিকে রেলওয়ের কিছু কোয়ার্টার ও পাহাড়তলী বাজারের আংশিক কিছু দোকান ও অবৈধ বস্তি রয়েছে। এই স্থান দিয়েও দীঘির ভেতরে প্রবেশের কোনো সুযোগ নেই। পরিবেশ অধিদফতরের তথ্য মতে, বিশাল এই দীঘির চারপাশে অবৈধ দখল ও বর্জ্য নিক্ষেপের কারণে দিন দিন পানি দূষিত হচ্ছে। দীঘিটি আয়তনে বড় হওয়ায় এখনো হয়তো পানির মানমাত্রা ব্যবহার উপযোগী রয়েছে, তবে ক্ষেত্র বিশেষে পানির গুণগত মান খারাপ এবং আগামীতে আরো ভয়াবহ আকার ধারণ করতে পারে।