চারজনকে গুলি করে হত্যার পর বন্দুকধারীর আত্মহত্যা

সুপ্রভাত বহির্বিশ্ব ডেস্ক

যুক্তরাষ্ট্রের পূর্বাঞ্চলীয় অঙ্গরাজ্য কেন্টাকির দুটি এলাকায় এক বন্দুকধারীর গুলিতে চারজন নিহত হয়েছে। উদ্ধার করা হয়েছে সন্দেহভাজন বন্দুকধারীর মরদেহ। চারজনকে হত্যার পর ওই বন্দুকধারী আত্মহত্যা করেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। স’ানীয় পুলিশের বরাত দিয়ে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি এ খবর জানিয়েছে। কর্তৃপক্ষ এরইমধ্যে বন্দুকধারীর পরিচয় শনাক্ত করার কথা জানিয়েছে। খবর বাংলাট্রিবিউন।
রোববার জনসন কাউন্টি শেরিফ ডোয়াইন প্রাইস ফেসবুক পোস্টে দেওয়া এক বিবৃতিতে জানান, শনিবার বিকেল ৪টার দিকে পুলিশের জরুরি সহায়তা বিভাগ ৯১১-এ একটি টেলিফোন কল আসে। জানানো হয়, লুইসভিলের ১৬০ মাইল দক্ষিণ-পূর্বে পেইন্টসভিলের কাছে একটি বাড়িতে গোলাগুলি হচ্ছে। ঘটনাস’লে পৌঁছে দুটি মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। বন্দুকধারীকে খুঁজতে তল্লাশি অভিযান শুরু হয়। এরপর ৯১১ নম্বরে আরও একটি ফোন আসে। পুলিশকে ডাকা হয় পেইন্টসভিলের আরেকটি অ্যাপার্টমেন্টে। সেখান থেকে সন্দেহভাজন বন্দুকধারীসহ তিনজনের মরদেহ উদ্ধার হয়। মরদেহগুলো গুলিবিদ্ধ ছিল।
জনসন কাউন্টি শেরিফ ডোয়াইন প্রাইস বলেন, ‘একজনের কর্মকাণ্ডের কারণে চারজনের প্রাণ এভাবে ঝরে যাওয়ার দৃশ্য দেখাটা হৃদয়বিদারক। একে ভাষায় বর্ণনা করা যাবে না। ৩৪ বছর ধরে আমি আইনশৃঙ্খলা বাহিনীতে আছি। আমার দেখা ভয়াবহ সহিংস ঘটনাগুলোর একটি এটি।’
কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, বন্দুকধারীর নাম জোসেফ নিকেল। তবে তার ব্যাপারে আর কোন্ও তথ্য জানা যায়নি। নিহতদের পরিচয়ও শনাক্ত করেছে কেন্টাকি পুলিশ। রোববার তারা জানিয়েছে, প্রথম বাড়িটি থেকে যে দুইটি মরদেহ উদ্ধার হয়েছে সেগুলো বন্দুকধারীর মা ও বাবার।
পরে পেইন্টসভিলের অ্যাপার্টমেন্ট থেকে যে মরদেহ উদ্ধার হয়েছে সেগুলো বন্দুকধারীর প্রেমিকা ও প্রেমিকার মায়ের। বেন্টনের একটি স্কুলে এক শিক্ষার্থীর গুলিতে দুইজন নিহত হওয়ার প্রায় তিন সপ্তাহের মাথায় কেন্টাকিতে নতুন এ হামলা হলো।