চবিতে ছাত্রদল নেতাকে ছাত্রলীগের মারধর

চবি সংবাদদাতা

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রদলের সিনিয়র সহ-সভাপতি আবদুল কাইয়ুমকে মারধর করেছে শাখা ছাত্রলীগের একাংশের নেতাকর্মীরা। মারধরের শিকার কাইয়ুমকে আহত অবস’ায় চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় মেডিক্যাল সেন্টারে ভর্তি করা হয়। পরে সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে স’ানীয় আলিফ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তিনি বাংলা বিভাগের ২০০২-০৩ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী ছিলেন।
রোববার বেলা দেড়টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের কলার ঝুপড়িতে এ মারধরের ঘটনা ঘটে। মারধরকারীরা বিজয় গ্রুপের নাসির উদ্দিন সুমনের অনুসারী হিসেবে পরিচিত।
জানা য়ায়, বিশ্ববিদ্যালয়ের কলা ঝুপড়িতে দুপুরের দিকে নেতা-কর্মীদের নিয়ে আলাপ করছিলেন ছাত্রদলের সহ-সভাপতি কাইয়ুম। এসময় স’গিত কমিটির উপ-অর্থ বিষয়ক সম্পাদক এইচ এম মাসুম, তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক
সম্পাদক শরীফুল ইসলাম ও ছাত্রলীগ কর্মী সাদাফ কবীর মিলে লাঠি দিয়ে তাকে মারধর করে। পরবর্তীতে কাইয়ুমকে নিয়ে ঘটনাস’ল ত্যাগ করে ছাত্রদল কর্মীরা। মারধরের বিষয়ে শাখা ছাত্রলীগের তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক শরিফুল ইসলাম বলেন, নাশকতার উদ্দেশে তারা ক্যাম্পাসের কলার ঝুপড়িতে মিটিং করছিল। আমাদের ছাত্রলীগ কর্মীরা তা আঁচ করতে পেরে খবর দিলে আমরা সেখানে গেলে তারা পালিয়ে যায়।
এ বিষয়ে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক শহীদুল ইসলাম বলেন, আমরা ঘটানটি বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে জানিয়েছি। জড়িতদের বিরুদ্ধে প্রশাসন ব্যবস’া না নিলে, সাধারণ শিক্ষার্থীদের নিয়ে ধর্মঘটের ডাক দেয়া হবে।
এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয় পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ আখতার হোসেন বলেন, ‘খবর শুনে আমরা ঘটনাস’লে যায়। পরে তাকে বিশ্ববিদ্যালয় মেডিক্যাল সেন্টারে প্রাথমিক চিকিৎসা প্রদান করা হয়।’
এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয় সহকারী প্রক্টর লিটন মিত্র বলেন, ‘আমরা এ রকম একটা ঘটনার খবর শুনেছি। এখনো পর্যন্ত লিখিত অভিযোগ আমাদের হাতে আসেনি। লিখিত অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস’া নেওয়া হবে।’