চট্টগ্রামে প্রার্থিতা ফিরে পেলেন মোট ৯ জন

নিজস্ব প্রতিবেদক

নির্বাচন কমিশনে আপিল শুনানির শেষদিন গতকাল শনিবার চট্টগ্রামে বিএনপির দুজন প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বৈধ ঘোষণা করা হয়েছে। মীর মো. নাছির উদ্দিনের মতো এ দিনের শুনানিতে বাতিল হয়েছে চট্টগ্রাম-৫ হাটহাজারী আসনের বিএনপির প্রার্থী মীর মো. হেলাল উদ্দিনের মনোনয়নপত্র। গত তিনদিনের শুনানিতে চট্টগ্রামের ৯ জন তাদের প্রার্থিতা ফিরে পেলেন। মনোনয়নপত্র বাতিলের বিরম্নদ্ধে চট্টগ্রাম থেকে মোট ২৭ জন প্রার্থী আপিল করেছিলেন।
ইসির শুনানিতে গতকাল যে দু’জন প্রার্থিতা ফিরে পেয়েছেন তারা হলেন বিএনপির কেন্দ্রীয় ভাইস চেয়ারম্যান চট্টগ্রাম-৮ বোয়ালখালী আসনের প্রার্থী এম মোরশেদ খান এবং সীতাকু–৪ আসনের বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব আসলাম চৌধুরী। বিলখেলাপি এবং শিড়্গাগত যোগ্যতার সনদপত্র জমা না দেওয়ায় মোরশেদ খানের এবং ঋণখেলাপি হওয়া আসলাম চৌধুরীর মনোনয়নপত্র বাতিল করেছিলেন রিটার্নিং কর্মকর্তা।
আপিল শুনানিতে আসলাম চৌধুরীর মনোনয়নপত্র বৈধ হওয়ার বিষয়টি সুপ্রভাতকে জানিয়েছেন তার আইনজীবী নাসিমা আক্তার চৌধুরী।
চট্টগ্রামে-৮ বোয়ালখালী আসনে এখনো দলীয় প্রার্থী ঘোষণা করেনি বিএনপি। এ আসনে বিএনপির আরো দুজন প্রার্থী হলেন এরশাদ উলস্নাহ ও মোহাম্মদ আবু সুফিয়ান। অন্যদিকে, চট্টগ্রাম-৪ সীতাকু–৪ আসনে ইসহাক কাদের চৌধুরীকে দলীয় প্রার্থী ঘোষণা করেছে বিএনপি। ইসহাক চৌধুরী ও আসলাম চৌধুরী ছাড়া এ আসনে বিএনপির আরেকজন প্রার্থী হলেন ওয়াই বি আই সিদ্দিকী।
এর আগে গত শুক্রবার ইসির শুনানিতে চট্টগ্রাম-৭ রাঙ্গুনিয়া আসনের বিএনপি প্রার্থী মো. আবু আহমেদ হাসনাত এবং চট্টগ্রাম-৮ বোয়ালখালী-চান্দগাঁও আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী হাসান মাহমুদ চৌধুরী প্রার্থিতা ফিরে পেয়েছিলেন।
আপিল শুনানির প্রথম বৃহস্পতিবার চট্টগ্রাম থেকে প্রার্থিতা ফিরে পেয়েছিলেন ৫ জন। তারা হলেন চট্টগ্রাম-১ আসনের বিএনপি প্রার্থী নুরম্নল আমিন, চট্টগ্রাম-৩ সন্দ্বীপ আসনের মোসত্মফা কামাল পাশা এবং চট্টগ্রাম-৮ বোয়ালখালী-চান্দগাঁও আসনের এরশাদ উলস্নাহ। চট্টগ্রাম-১০ পাহাড়তলী-ডবলমুরিং আসনের জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের আনিসুর রহমান এবং চট্টগ্রাম-১৬ বাঁশখালী আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. জহিরম্নল ইসলাম।
২ ডিসেম্বর চট্টগ্রামে যাচাই-বাছাই শেষে ৪৭ জন প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়। এর মধ্যে ২৭ জন প্রার্থী নির্বাচন কমিশনে আপিল করেন। এর মধ্যে তিনদিনের শুনানিতে ৯ জনের মনোনয়নপত্র বৈধ হলো।