সমভাবে মসজিদ ও মন্দিরের উন্নয়ন করছি : ফজলে করিম

নিজস্ব প্রতিনিধি, রাউজান

এবিএম ফজলে করিম চৌধুরী এমপি বলেছেন, রাউজানে আমার কাছে প্রত্যক ধর্মের মানুষের অধিকার সমান। মসজিদ-মন্দিরসহ প্রত্যক কিছুর উন্নয়ন আমি সমভাবে করে যাচ্ছি। ধর্ম যার যার, উৎসব সবার : এই মন্ত্রে আমি বিশ্বাস করি। তিনি গতকাল মঙ্গলবার রাতে রাউজান পৌরসভার সুলতানপুর নন্দীপাড়া কালীবিগ্রহ মন্দির পরিচালনা কমিটির উদ্যোগে শ্রী শ্রী শ্যামা মায়ের ২৮২তম পূজা উপলক্ষে ‘মানব কল্যাণই ধর্মের মূলকথা’ শীর্ষক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে একথা বলেন। এতে মুখ্য আলোচক ছিলেন চট্টগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজি ড. এস এম মুনির-উজ-জামান। উৎসব উদযাপন কমিটির সভাপতি, চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়নের সহ সভাপতি নিরুপম দাশগুপ্তের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক রাজীব দাশের সঞ্চালনায় উদ্বোধক ছিলেন বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ সভাপতি শ্যামল কুমার পালিত। বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদের চট্টগ্রাম জেলা শাখার সাবেক সভাপতি দিলীপ কুমার মজুমদার। সম্মানিত অতিথি ছিলেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শামীম হোসেন রেজা, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (চট্টগ্রাম উত্তর) মশিউদৌলা রেজা, রাউজান-রাঙ্গুনিয়া সার্কেল এএসপি জাহাঙ্গীর, পৌরসভার প্যানেল মেয়র বশির উদ্দিন খান, আওয়ামী লীগ নেতা আনোয়ারুল ইসলাম, উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদ সভাপতি প্রিয়তোষ চৌধুরী, পৌরসভার ২য় প্যানেল মেয়র জমির উদ্দিন পারভেজ, কাউন্সিলর জানে আলম জনি, পৌর আওয়ামী লীগ নেতা নজরুল ইসলাম চৌধুরী, নুরুল ইসলাম চৌধুরী শাহাজান, চেয়ারম্যান সৈয়দ আবদুল জব্বার সোহেল, সাবেক কাউন্সিলর সামীমুল ইসলাম চৌধুরী সামু। উদ্বোধনী বক্তব্য রাখেন অরুণ বিজয় দাশ।
অনুষ্ঠানে মুখ্য আলোচক বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এদেশকে উন্নত রাষ্ট্রে পরিণত করার জন্য দিনরাত কাজ করছেন। তিনি বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে লালন করে এদেশকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন। তিনি বলেন, অতীতের সব সরকারের চাইতে আইনশৃংখলা অনেক ভালো। মানুষ শান্তিতে যার যার ধর্মীয় আচার অনুষ্ঠান পালন করছে।
শুরুতে প্রধান অতিথি ফজলে করিম ও মুখ্য আলোচক ড. এস.এম মুনির-উজ-জামানকে আয়োজক কমিটির পক্ষ থেকে ক্রেস্ট দিয়ে বরণ করা হয়। পরে অসহায়দের মাঝে বস্ত্র বিতরণ করা হয়।