সংযোগ দিতে গিয়ে

চকরিয়ায় বিদ্যুৎ বিভাগের কর্মকর্তা কর্মচারী লাঞ্ছিত

নিজস্ব প্রতিনিধি, চকরিয়া

চকরিয়ায় এবার বিদ্যুৎ বিভাগের আবাসিক প্রকৌশলী ফয়জুল আলীম আলোকে লাঞ্ছিত করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে নির্দিষ্ট জায়গায় চতুর্থবারের মতো মিটার লাগানোসহ বিদ্যুতের সংযোগ দিতে গেলে আবেদনকারী পৌরসভার দুই নম্বর ওয়ার্ডের শমসের পাড়ার ছৈয়দ আলমের লোকজন এই কাণ্ড ঘটায়গত সোমবার বিকেল সাড়ে পাঁচটার দিকে। এর আগে নির্দিষ্ট জায়গা ছাড়া অন্যকোথাও মিটার সংযোগ দেওয়া হবে না মর্মে প্রকৌশলী ফয়জুল আলীম আলো তার স্বাক্ষরিত একটি নোটিশ ছৈয়দ আলমকে দিতে চাইলে তা ফেরত দেন। নিয়মানুযায়ী ওই নোটিশ দেওয়ালে সাঁটানোর চেষ্টা করলেও সেই নোটিশও কেড়ে নিয়ে উপসি’ত সবার সামনে ছুঁড়ে মারেন ছৈয়দ আলম। ছৈয়দ আলম দাবি করেছেন,তিনি এক বছর আগে মিটারসহ বিদ্যুৎ সংযোগ পাওয়ার জন্য আবেদন করেন বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড চকরিয়া কার্যালয়ে। কিন’ আজ দেবে কাল দেবে বলে সময়ক্ষেপন করতে থাকে সংশ্লিষ্টরা।এমনকি মোটা অংকের উৎকোচও চায় তারা।সর্বশেষ এনিয়ে আদালতের আশ্রয় নেওয়া হয় তার পক্ষ থেকে।আদালত তার অভিযোগটি তদন্ত করে প্রতিবেদন দেওয়ার জন্য চকরিয়া থানার ওসিকে নির্দেশ দেন।এতে ছৈয়দ আলম বার বার আপত্তি করেন নির্দিষ্টস’ানে মিটার লাগাতে গেলে।এনিয়ে আমার অফিসের সহকারী প্রকৌশলী সাজ্জাদুল ইসলাম মিটার নিয়ে তিনবার তার দ্বারস’ হন সংযোগ দিতে। কিন’ তিনি বার বার ফেরত দেন এবং অসৌজন্যমূলক আচরণ করেন।
এমনকি নির্দিষ্টস’ানে মিটার স’াপনসহ সংযোগ পেতে সহায়তা করার নোটিশ নিয়ে গেলে সেই নোটিশ কেড়ে নিয়ে ছুঁড়ে মারেন।’ আবাসিক প্রকৌশলী কার্যালয়ের সহকারী প্রকৌশলী সাজ্জাদুল ইসলাম বলেন,‘আমি এর আগে পরপর তিনবার মিটার নিয়ে আবেদনকারী ছৈয়দ আলমের বাড়িতে গিয়েছি। কিন’ তিনি আমার সঙ্গেও বার বার অসৌজন্যমূলক আচরণ করেন এবং মামলায় জড়ানোসহ পেটানোর হুমকি দেন।’