ঘুম বাবাজি

উৎপলকান্তি বড়ুয়া
sleep

-ঘুম বাবাজি প্লিজ, আরেকটু! আরেকটু অপেক্ষা করো। আমার আরেকটু পড়া শেখার বাকি। প্লিজ ঘুম বাবাজি। একটু পর এসো। এই তো এখনই দেখে নিচ্ছি। বাকী পড়াটা শেষ করি। তারপর তুমি এসো। আরেকটু প্লিজ। এভাবেই খুকুমনি ঘুমকে অনুরোধ করে আরেকটু পরে আসার জন্য। কাল পরীক্ষা। তার সিলেবাস শেষ হয়নি।

-আচ্ছা আপনারা বলুন, আমার কি দোষ! আমি তো নিয়ম মেনেই আসি। খুকুমনি তার পড়া ঠিক সময়ে শেষ করেনি বলে, আমি কি তার ইচ্ছে মতো অপেক্ষা করতে পারি?
-ও, -আমি কে? আমাকে চিনলে না? আমি ঘুম। ঘুম আমার নাম। আমি কোথায় থাকি? -ওমা! তাও জানো না! কেনো, আমি চোখের পাতায় থাকি। সবার দু’চোখের পাতায় নিবির হয়ে। আমি কাউকে অযথা বিরক্ত করি না। সময় হলেই কেবল আসি। নিয়ম মেনে আসি। আমার আসতে হয়। সবার দু’চোখে আমার আসতে হয়। রাতের বেলায় সকলের দু’চোখে আমি স্বভাবত এসে থাকি। অনেকের কাছে আবার দুপুরে-টুপুরেও আসতে হয়। কিন্তু দেখো না, এতো রাত হয়ে গেলো, খুকুমনি তার পড়া পড়ে শেষ করেনি বলে আমাকে তার পাশও ঘেষতে দিচ্ছে না। দু’চোখে বার কয়েক পানির ঝাপটা দিয়ে আমাকে দূরে সরিয়ে রাখলো।

-আমার যে নিয়ম মেনে আসতেই হয়। আমি সবার চোখে যথাসময়ে চলে আসি। আবার দেখো খুকুমনিদের পশ্চিমের বাড়িতে দুষ্টু যে খোকাটা আছে না, তার মা আমাকে প্রায় সময়ই আদর করে, সুরেলা কন্ঠে ডাকে। তাদের বাড়িতে আসার জন্য। দুষ্টু খোকার চোখে নেমে আসার জন্য। ওমা! তোমরা শোনো নি? দুষ্টু খোকার মা যে সুর করে আমাকে ডাকে- ‘আয় মিষ্টি ঘুম আয়, আমার খোকার চোখে নেমে আয়, আয় ঘুম আয়্ত্ত।’ তখন দুষ্টু খোকার মায়ের ডাকেও আমাকে আসতে হয়। দুষ্টু খোকা তখন চুপটি করে দু’চোখ বুজে ঘুমিয়ে পড়ে তার নরম বিছানায়।

-দেখোই না, এখনও পর্যন্ত খুকুমনি তার পড়া শেষ করতে পারেনি। এর মধ্যে দু’চোখে পানির ঝাপটা দিলো আরো একবার। তোমরা বলো, আমার রাগ হয় না বুঝি? আমি কি অনিয়ম করতে পারি? খুকুমনি তার বইয়ের পড়া যথাসময়ে শিখেনি। পরীক্ষার আগের দিন শুধু পড়া নিয়ে উঠে পরে লেগেছে।

-আসলে, সময়ের কাজ সময়ে করতে হয়। খুকুকে এ কথাটা তোমরা একটু বুঝিয়ে বলো না প্লিজ, প্লিজ। ওমা! চুপ করে আছো যে! তার মানে, বলবে না? আচ্ছা আমি বলবো। খুকুকে বলবো। -সময়কে হেলা করতে নেই। খেলার সময় খেলা। পড়ার সময় পড়া। খুকুকে আজ ভালো করে আমিই বুঝিয়ে বলবোই। আর খুকু যখন বুঝবে, তখন আমাকে আর বলবে না- ঘুম বাবাজি একটু অপেক্ষা করো, একটু পর এসো। হ্যাঁ,। এখনই বলবো। খুকুকে এ কথা বুঝিয়ে বলা দরকার।