কর্ণফুলীতে গৃহবধূ ধর্ষণ

ঘটনা স্বীকার করে ৩ আসামির জবানবন্দি

নিজস্ব প্রতিবেদক

নগরীর কর্ণফুলী থানাধীন চরলক্ষ্যা ইউনিয়নের গোয়ালপাড়া এলাকায় এক গৃহবধূ ধর্ষণের ঘটনায় গ্রেফতার তিন আসামি ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। গতকাল রোববার মহানগর হাকিম শফি উদ্দিনের আদালত দণ্ডবিধির ১৬৪ ধারা অনুযায়ী তিন আসামির জবানবন্দি রেকর্ড করেন। গত শুক্রবার গভীর রাতে ধর্ষণের ঘটনায় তিনজনকে অভিযান চালিয়ে গ্রেফতার করে পুলিশ। জবানবন্দি শেষে আসামিদের কারাগারে পাঠানোর আদেশও দেন আদালত।

জবানবন্দি দেওয়া তিন আসামি হলেন- মো. ইমরান (৩০), মো. শাহজাহান (৩২), কাউসার হালিম ওরফে মুন্না (১৮)। তারা সবাই চরলক্ষ্যা ইউনিয়নের গোয়ালপাড়া এলাকার বাসিন্দা।জবানবন্দিতে তারা আদালতকে জানান- ওই গৃহবধূকে একা পেয়ে তারা চারজন মিলে ধর্ষণ করেন। ধর্ষণে জড়িত অন্য যুবক হলেন- নুরুল আমিন। সেও একই এলাকার বাসিন্দা বলে জবানবন্দিতে আসামিরা বলেন।নগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (প্রসিকিউশন) নির্মলেন্দু বিকাশ চক্রবর্তী সুপ্রভাতকে বলেন- কর্ণফুলীর ধর্ষণ ঘটনা স্বীকার করে তিন আসামি স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। ঘটনায় জড়িত নুরুল আমিন নামের অন্য একজনের নামও জবানবন্দিতে বলেছেন আসামিরা।

পুলিশসূত্রে জানা যায়- গত শনিবার ভোর রাতে চার সন্তানের জননী ওই নারী স্বামীর সাথে ঝগড়া করে বাবার বাড়ি যাওয়ার জন্য ঘর থেকে বের হয়ে গিয়েছিলেন। পথে গ্রেফতার আসামিরাসহ মোট চারজন মিলে মহিলাটিকে ধরে নির্জন স’ানে নিয়ে যান। এরপর ধর্ষণ করেন। এ ঘটনায় নারী ও শিশু আইনে একটি মামলা দায়ের হয় কর্ণফুলী থানায়। ঘটনার পরপর অভিযান চালিয়ে তিনজনকে গ্রেফতার করলেও অন্য আসামি নুরুল আমিন পালিয়ে যায়। তবে তাকে গ্রেফতার করতে অভিযান চলছে বলে পুলিশসূত্রে জানা যায়।