পাঁচলাইশ, কেবি ফজলুল কাদের সড়ক ৬ তলা থেকে পড়ে

গৃহকর্মীর মৃত্যু সেনাবাহিনীর সাবেক মেজর গৃহকর্তা নাদিরা জামানকে পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদ

নিজস্ব প্রতিবেদক

নগরীর পাঁচলাইশ থানাধীন প্রবর্তক মোড় এলাকায় ছয়তলা ফ্ল্যাটের ছাদ থেকে পড়ে ১৭ বছর বয়সী রুনু আকতার নামের এক গৃহকর্মীর মৃত্যু হয়েছে।
গতকাল শনিবার বিকেল সোয়া পাঁচটার দিকে এ ঘটনা ঘটে। এই কিশোরী গৃহপরিচারিকা ছাদ থেকে পড়ে যাওয়ার পর স’ানীয় লোকজন তাকে উদ্ধার করে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যায়। কিন’ কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।
জানা যায়, রুনু আকতার নামের এই কিশোরী ছয় তলা ফ্ল্যাটের নাদিরা জামান নামের একজন গৃহকর্তার ভাড়া বাসায় কাজ করতেন। গৃহকর্তা নাদিরা জামান সেনাবাহিনীর একজন সাবেক মেজর। তিনি বর্তমানে এশিয়ান ইউনিভার্সিটিতে নিরাপত্তা কর্মকর্তা হিসেবে চাকরি করেন। স্বামী ও দুই সন্তান নিয়ে তিনি এ ফ্ল্যাট বাসায় বসবাস করে আসছেন। সঙ্গে তাঁর বৃদ্ধ মাও থাকেন। তবে গতকাল বাসায় তাঁর স্বামী ছিলেন না বলে জানিয়েছে পুলিশ।
পুলিশ জানিয়েছে, ১৭ বছরের কিশোরী রুনু আকতার বিবাহিতা। কিন’ স্বামীর সাথে তার সম্পর্ক নেই। দীর্ঘদিন ধরে সে এ ফ্ল্যাট বাসায় কাজ করছেন। তার গ্রামের বাড়ি নোয়াখালীতে
তবে কীভাবে ও কী কারণে এই কিশোরী গৃহপরিচারিকা ছাদ থেকে পড়েছে গতরাত ১০টায় এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত তার রহস্য উদঘাটন করতে পারেনি পুলিশ।
গতরাত সাড়ে ৯টার দিকে ঘটনাস’ল থেকে নগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (উত্তর) মিজানুর রহমান ফোনে সুপ্রভাতকে বলেন, ‘কিশোরীটি ছাদ থেকে কীভাবে পড়লো, কী কারণে পড়লো তা আমরা এখনো জানতে পারিনি। বিষয়টা আমাদের কাছে রহস্যজনক মনে হচ্ছে। ফ্ল্যাটের গৃহকর্তা নাদিরা জামান এ বিষয়ে কিছু জানেন না বলে আমাদের জানিয়েছেন। আমরা তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করছি।’
পাঁচলাইশ থানার ওসি তদন্ত ওয়ালি উদ্দিন আকবর সুপ্রভাতকে বলেন, ‘কিশোরীটি কি আত্মহত্যার উদ্দেশে নিজেই ছাদ থেকে লাফ দিয়েছে নাকি কেউ তাকে ফেলে দিয়েছে সেটা আমরা এখনো বলতে পারছি না। নিশ্চয়ই এর পেছনে কোনো কারণ থাকবেই।’