গণতন্ত্র সুরক্ষায় আবদুল খালেক ইঞ্জিনিয়ারের অবদান ঐতিহাসিক

বিজ্ঞপ্তি

স্বাধীন সংবাদপত্র দৈনিক আজাদীর প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক মোহাম্মদ আবদুল খালেক ইঞ্জিনিয়ারের ৫৭ তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলড়্গে মোহাম্মদ আবদুল খালেক ইঞ্জিনিয়ার, দৈনিক আজাদী এবং গণতন্ত্র শীর্ষক সেমিনার গতকাল চট্টগ্রাম প্রেসক্লাব এস.রহমান হলে অনুষ্ঠিত হয়।  সমিতির কেন্দ্রীয় সভাপতি এস.এম.জামাল উদ্দিন এতে সভাপতিত্ব ও মূল প্রবন্ধ পাঠ করেন। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনার  মো. আবদুল মান্নান।

সাংগঠনিক সম্পাদক মোহাম্মদ নাজিম উদ্দিনের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি  ছিলেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান সমিতির সভাপতি ও রাউজান উপজেলা চেয়ারম্যান একেএম এহসানুল হায়দার চৌধুরী, ওয়ার্ল্ড এসোসিয়েশন অব প্রেস কাউন্সিলের সাবেক নির্বাহী সদস্য , মুক্তিযোদ্ধা  মইনুদ্দীন কাদেরী শওকত, চট্টগ্রাম কর আইনজীবী সমিতির প্রাক্তন সভাপতি মোহাম্মদ মুছা। স্বাগত বক্তব্য রাখেন সেমিনার উদযাপন কমিটির চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর চৌধুরী। শুরম্নতে পবিত্র কোরআন তেলাওয়াত করেন এস.এম.সিরাজউদ্দৌলস্নাহ।

এতে বক্তব্য রাখেন দৈনিক নয়াবাংলা সম্পাদক জেড.এম.এনায়েত উলস্নাহ, কর আইনজীবী মো. আমির হোসেন, মানবাধিকার নেতা নূর মোহাম্মদ পুতু, মোহাম্মদ নাজিম উদ্দিন, সুফী এস.এম.সিরাজউদ্দৌলস্নাহ, পারশেদ বিন আনোয়ার, সজল দাশ, মো. আবু তাহের, রাজনীতিবিদ স্বপন সেন, ডা. চন্দন দত্ত, সোহেল মাহমুদ প্রমুখ নেতৃবৃন্দ।

চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনার মো. আবদুল মান্নান বলেন, আজাদীর প্রতিষ্ঠাতা আবদুল খালেক ইঞ্জিনিয়ারিং পাস করেও নিজের মর্যাদাপূর্ণ পেশায় না থেকে পত্রিকা বের করার চিনত্মা করেছিলেন।  মোহাম্মদ আবদুল খালেক ইঞ্জিনিয়ার ছিলেন বহুবিদ জ্ঞানের অধিকারী ব্যক্তিত্ব। গণতন্ত্রের জন্য প্রয়োজন আইনের শাসন।  স্বাধীনতা আন্দোলনের সময় তাঁর প্রতিষ্ঠিত দৈনিক আজাদী’র ভূমিকা ছিল গণতন্ত্রের পড়্গে সুস্পষ্ট। বিশেষ অতিথির বক্তব্যে উপজেলা চেয়ারম্যান এহসানুল হায়দার চৌধুরী বলেন, মোহাম্মদ আবদুল খালেক তুখোড়-মেধাবী লোক ছিলেন।

তিনি ভিড়্গুকের হাতকে কর্মীর হাত বানিয়েছেন এবং সমাজের পরিবর্তন এনেছেন।  সেমিনার শেষে সমাজে বিভিন্ন পেশায় অবদান রাখায় তিনজন গুণীজনকে সম্মাননা স্মারক-২০১৯ তুলে দেওয়া হয়।