‘খাসোগির দেহাবশেষ পাওয়া গেছে’

সুপ্রভাত ডেস্ক

সৌদি সাংবাদিক জামাল খাসোগির দেহাবশেষ পাওয়া গেছে বলে জানিয়েছে যুক্তরাজ্যভিত্তিক সংবাদমাধ্যম স্কাই নিউজ। মঙ্গলবার নিজস্ব সূত্রের বরাত দিয়ে এখবর জানিয়েছে সংবাদমধ্যমটি। খবরে বলা হয়েছে, ইস্তানবুলে নিযুক্ত সৌদি কনসালের বাসভবনের বাগান থেকে খাসোগির দেহাবশেষ উদ্ধার করা হয়। তবে ইস্তানবুলের তুর্কি প্রসিকিউটর কার্যালয় এই খবর অস্বীকার করেছে। তাদের দাবি, সামাজিক মাধ্যমে খাসোগির লাশের যে ছবি প্রকাশ করা হয়েছে তা ভুয়া। খবর বাংলাট্রিবিউন।
অপরাধের ঘটনাস’ল তদন্তকারীরা দুটি স্যুটকেস পেয়েছেন বলে জানিয়েছে মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএন’র তুরস্ক শাখা। সংবাদমাধ্যমটি জানিয়েছে, সোমবার পরিত্যক্ত অবস’ায় উদ্ধার হওয়া সৌদি কনস্যুলেটের মার্সিডিজ-বেঞ্জ গাড়ি থেকে এই স্যুটকেস দুটি পাওয়া গেছে।
এক প্রত্যক্ষদর্শী ব্রিটিশ বার্তা সংস’া রয়টার্সকে জানায়, সৌদি আরব ও তুরস্কের একটি তদন্তকারী দল সোমবার ইস্তানবুলের সুলতানগাজি জেলায় পার্কিংয়ে উদ্ধার করা গাড়িটিতে তল্লাশি চালিয়েছে।
মঙ্গলবার তুর্কি প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়্যেব এরদোয়ান জানিয়েছিলেন, খাসোগির লাশের সন্ধান এখনও পাওয়া যায়নি।
উল্লেখ্য, ২ অক্টোবর ইস্তানবুলে সৌদি কনস্যুলেট ভবনে প্রবেশের পর নিখোঁজ হন সৌদি অনুসন্ধানী সাংবাদিক জামাল খাসোগি। সৌদি আরব খাসোগির নিখোঁজে ভূমিকার কথা বারবার অস্বীকার করে। তুরস্ক দাবি করে, কনস্যুলেটের ভেতরেই তাকে হত্যার পর কেটে টুকরো টুকরো করা হয়েছে। শেষ পর্যন্ত শুক্রবার (১৯ অক্টোবর) মধ্যরাতে প্রথমবারের মতো সৌদি আরব সাংবাদিক জামাল খাসোগি নিহত হওয়ার কথা স্বীকার করে। তবে তারা দাবি করে, তারা খাসোগিকে দেশে ফিরিয়ে আনতে গিয়েছিলেন। তাকে হত্যার কোনও উদ্দেশ্য ছিল না। আর হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে সৌদি যুবরাজ মুহাম্মদ বিন সালমানের সংশ্লিষ্টতার অভিযোগ নাকচ করে দিয়েছে দেশটি। তবে সৌদি আরবের এমন দাবি মানছে না তুরস্কসহ আন্তর্জাতিক সমপ্রদায়। তুর্কি প্রেসিডেন্ট দাবি করেছেন, খাশোগিকে হত্যার পরিকল্পনা করা হয় সেপ্টেম্বর মাসে।