ক্রোয়েশিয়াকে স্পেনের ‘হাফ ডজন’

সুপ্রভাত ক্রীড়া ডেস্ক

ইভান রাকিতিচের শততম ম্যাচ যত দ্রুত সম্ভব ভুলে যেতে চাইবে ক্রোয়েশিয়া। তারকা মিডফিল্ডারের মাইলফলক ছোঁয়ার ম্যাচে যে উড়ে গেছে বিশ্বকাপের রানার্সআপ দলটি। দেশের মাটিতে উয়েফা নেশন্স লিগের ম্যাচে ক্রোয়াটদের জালে গোল উৎসব করেছে স্পেন। গত মঙ্গলবার রাতে ‘এ’ লিগের গ্রুপ ৪-এর ম্যাচে ৬-০ গোলে জিতেছে লুইস এনরিকের দল। নিজেদের ইতিহাসে এটাই ক্রোয়েশিয়ার সবচেয়ে বড় পরাজয়। এর আগে কখনও চার গোলের চেয়ে বড় ব্যবধানে হারেনি তারা।

সাউল নিগেসের গোলে এগিয়ে যাওয়ার পর স্পেন ব্যবধান বাড়ায় মার্কো আসেনসিওর বুলেট গতির শটে। দ্বিতীয়ার্ধে লক্ষ্যভেদ করেন রদ্রিগো, সের্হিও রামোস ও ইসকো। মাঝে আত্মঘাতী গোল করে বসেন ক্রোয়েশিয়া গোলরক্ষক লোভরে কালিনিচ। এলচের মাঠে ত্রয়োদশ মিনিটে ম্যাচের প্রথম ভালো সুযোগ পায় ক্রোয়েশিয়া।ষোড়শ মিনিটে নিজেদের প্রথম সুযোগ পায় স্পেন। ইসকোর দারুণ ক্রসে রদ্রিগোর ফ্লিকে তেমন কোনো জোর না থাকায় ফেরাতে সমস্যা হয়নি গোলরক্ষক কালিনিচের। অষ্টাদশ মিনিটে দারুণ ব্লক করে স্পেনকে বাঁচান দানি কারভাহাল। ২৪তম মিনিটে করভাহালের দারুণ ক্রসে সাউলের হেড ঠিকানা খুঁজে পেলে এগিয়ে যায় স্পেন। চার দিনের মধ্যে দ্বিতীয়বার দেশের হয়ে গোল পেলেন সাউল। ৩৩তম মিনিটে দারুণ এক গোলে ব্যবধান বাড়ান আসেনসিও। দুই মিনিট পর আবার আসেনসিও জাদু। গোলটি রিয়াল মিডফিল্ডারের নামে লেখা থাকবে না, তবে পুরো কৃতিত্ব তারই। দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই ব্যবধান বাড়ায় স্পেন।

সাবেক বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের চতুর্থ গোলে বড় অবদান আছে সাউল ও আসেনসিওর। ৫৭তম মিনিটে জালের দেখা পেয়ে যান স্পেন অধিনায়ক রামোস। ৭০তম মিনিটে স্কোর লাইন ৬-০ করে ফেলেন ইসকো। খবর বিডিনিউজ’র।