কমিটি নিয়ে বিরোধ দক্ষিণ জেলা বিএনপি কার্যালয় ভাঙচুর করলো ছাত্রদল

নিজস্ব প্রতিবেদক

কমিটি নিয়ে বিরোধের জের ধরে নগরীর নিউ মার্কেট দোস্ত বিল্ডিংয়ে দক্ষিণ জেলা বিএনপি অফিসে ভাঙচুর করেছে ছাত্রদলের পদবঞ্চিত নেতাকর্মীরা। গতকাল বুধবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। দোস্তবিল্ডিংয়ের তৃতীয় তলায় জেলা বিএনপি অফিসের তালা ভেঙ্গে সেখানে গতকাল সকালে প্রতীকী অনশন কর্মসূচি পালন করে ছাত্রদলের অর্ধশতাধিক পদবঞ্চিত নেতাকর্মী। কর্মসূচি শেষ হওয়ার পরপরই ছাত্রদলের পদবঞ্চিত নেতাকর্মীরা সেখানে ভাঙচুর শুরু করে। অফিসে থাকা প্লাস্টিকের চেয়ার, বিভিন্ন ব্যানার ছিঁড়ে ফেলে তারা। প্রায় আধা ঘণ্টা ধরে তাদের এ তাণ্ডব চলে।
‘বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার সুচিকিৎসা ও মুক্তির দাবিতে দক্ষিণ জেলার আওতাধীন সব উপজেলা, পৌরসভা, বিশ্ববিদ্যালয় ও কলেজ শাখা ছাত্রদল’ ব্যানারে এ কর্মসূচি পালন করে তারা।
জেলা ছাত্রদলের নবগঠিত কমিটি থেকে অব্যাহতি পাওয়া সিনিয়র সহসভাপতি ইকবাল হায়দার ও কমিটিতে
সভাপতি প্রত্যাশী জমির উদ্দিন পদবঞ্চিত নেতাকর্মীদের নেতৃত্ব দেয়। জেলা ছাত্রদলের সাবেক আহ্বায়ক জসিম উদ্দিনকেও তাদের সাথে দেখা যায়।
ঘটনার বিষয়ে জানতে চাইলে জেলা ছাত্রদলের সাবেক আহ্বায়ক জসিম উদ্দিন সুপ্রভাতকে বলে, ‘আমরা শান্তিপূর্ণভাবে কর্মসূচি শেষ করি। এসময় হঠাৎ কে বা কারা অফিসের ভেতরে ঢুকে চেয়ার ছোঁড়াছুড়ি শুরু করে। এটা নিতান্তই ষড়যন্ত্রমূলক বলে মনে হচ্ছে।’
উল্লেখ্য, ১ আগস্ট দক্ষিণ জেলা ছাত্রদলের ৫ সদস্যের আংশিক কমিটি ঘোষণা করা হয়। এরমধ্যে চারজনই বিবাহিত ও সন্তানের বাবা। ২০০০ সালের পরে এসএসসি পাশ করা ছাত্রদের মধ্য থেকে এবার ছাত্রদলের নেতৃত্ব নির্বাচনের বাধ্যবাধকতা ছিল। কিন’ দক্ষিণ জেলা ছাত্রদলের নেতৃত্ব নির্বাচনে এ নীতি অনুসরণ করা হয়নি। ২০০০ সালের আগে এসএসসি পাশ করা ছাত্রদেরও কমিটিতে স’ান দেওয়া হয়।
এসব কারণে জেলা ছাত্রদলের কমিটি ঘোষণার পর উপজেলা-পৌরসভায় তৃণমূল নেতাকর্মীরা ক্ষুব্ধ হয়ে উঠে। কমিটি ঘোষণার একমাস পর এসব বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীদের ক্ষোভের আগুন অফিস ভাঙচুরের মাধ্যমে প্রকাশ পেল।