পেকুয়ায় সাবেক চেয়ারম্যানের

ওপর হামলা বসতবাড়ি ভাংচুর ঘটনাস’লে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন

নিজস্ব প্রতিনিধি, চকরিয়া

পেকুয়া উপজেলার মগনামা ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান ইউনুছের উপর হামলা চালিয়েছে দুর্বৃত্তরা। গতকাল শনিবার সন্ধ্যায় কাকপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এসময় তার বাড়িতে ব্যাপক ভাংচুরও করা হয়।
ইউনুছ চেয়ারম্যানের স্ত্রী জান্নাতুল ফেরদৌস বলেন, ‘শনিবার সকাল থেকে সন্ত্রাসীরা বাড়ি লক্ষ্য করে গুলিবর্ষণ করে। এসময় স’ানীয় প্রশাসনের সহায়তা চেয়েও পাইনি। পরে সন্ধ্যায় মগনামা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শরাফত উল্লাহ ওয়াসিমের নেতৃত্বে কালার পাড়া এলাকার কানা মানিক, পশ্চিম কূল এলাকার জিয়াবুল, কাজী মার্কেট এলাকার আব্দুল করিম, লিটন, আফজলীয়া পাড়া এলাকার কায়সার ও জয়নালসহ অর্ধশতাধিক সন্ত্রাসী বাড়িতে হামলা চালায়। এসময় তারা ব্যাপক ভাংচুর চালিয়ে গুলিবর্ষণ করে আমার স্বামীকে তুলে নিয়ে যায়। পরে স’ানীয়দের সহযোগিতায় আমার স্বামীকে গুরুতর আহত অবস’ায় উদ্ধার করি। তাকে পেকুয়া উপজেলা স্বাস’্য কমপ্লেক্সে
ভর্তি করানো হয়েছে।’
পেকুয়া উপজেলা স্বাস’্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক ডা. মুজিবুর রহমান বলেন, ‘আহত ইউনুছের অবস’া গুরুতর। তার মাথা, চোখসহ শরীরের বিভিন্ন স’ানে আঘাত রয়েছে। উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।’
মগনামা ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা সুলতান মো. রিপন বলেন, চলতি মৌসুমের শুরুতে সাবমেরিন স্টেশনের জন্য অধিগ্রহণ করা সরকারি জমি লবণ চাষের জন্য অবৈধ দখল নেয় মগনামা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শরাফত উল্লাহ ওয়াসিম। জমির বিনিময়ে প্রান্তিক লবণ চাষীদের কাছ থেকে তিনি অর্থ আদায় করতে থাকেন।
কক্সবাজার জেলা পরিষদ সদস্য ও পেকুয়া উপজেলা যুবলীগ সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম বলেন, ‘ষড়যন্ত্রমূলক ফাঁসানো মামলায় দীর্ঘ দশমাস কারাভোগ করার পর শুক্রবার (১২ জানুয়ারি) গণসংবর্ধনার মাধ্যমে এলাকায় ফিরেন আওয়ামী লীগ নেতা ইউনুছ চেয়ারম্যান। তার ফিরে আসাতে প্রাণসঞ্চার হয় গ্রামবাসীর মধ্যে। প্রতিবাদ মুখর হয়ে উঠে চাষীরা। বন্ধ করে দেওয়া হয় চেয়ারম্যান ওয়াসিমকে অনৈতিক চাঁদা প্রদান কার্যক্রম। আর এতেই ফুঁসে উঠে ওয়াসিমের বাহিনী। তাই পরিকল্পিতভাবে তার উপর এ হামলা চালানো হয়।’
পেকুয়া থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মনজুর কাদের মজুমদার বলেন, ‘পূর্ব শত্রুতা এবং জমির দখল সংক্রান্ত বিষয়ে এ ঘটনা ঘটেছে বলে প্রাথমিকভাবে জানতে পেরেছি। ইউনুছ চেয়ারম্যানের উপর হামলাকারীদের ধরতে পুলিশের অভিযান চলছে। ঘটনাস’লে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।’