ঐক্যফ্রন্ট তেল-পানির মিশ্রণ : তথ্যমন্ত্রী

সুপ্রভাত ডেস্ক

কামাল হোসেনের নেতৃত্বে বিএনপিকে নিয়ে গঠিত জাতীয় ঐক্যফ্রন্টকে তেল-জলের মিশ্রণের সঙ্গে তুলনা করে আওয়ামী লীগ নেতা তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ বলছেন, এই জোট ভাঙার জন্য বাইরে থেকে কোনো চেষ্টার দরকার পড়বে না। খবর বিডিনিউজ।
সমসাময়িক বিষয় নিয়ে সোমবার সচিবালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, ‘মির্জা ফখরম্নল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, সরকার নাকি বিএনপি ও ঐক্যফ্রন্টকে ভাঙার চেষ্টা করছে। ঐক্যফ্রন্টকে তো ভাঙার কোনো প্রয়োজন নেই। ‘তেল আর পানির মিশ্রণ ঘটালে যে রকম হয়, ঐক্যফ্রন্ট হচ্ছে সে রকম একটি মিশ্রণ। তেল আর পানি যেমন কখনও মেশানো যায় না, ঐক্যফ্রন্টে চরম ডানপনি’, বামপনি’, মধ্যপনি’ বিভিন্নপনি’দের যে সংমিশ্রণ ঘটেছে সেটি হচ্ছে তেল আর পানির মিশ্রণের মত।
আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক হাছান বলেন, ‘তেল আর পানির মিশ্রণ ঘটালে যেমন দুটি আলাদাই থাকে, সেখানে তাদের অবস’ানও আলাদা আলাদা, এটিকে ভাঙার প্রয়োজন বা ভাঙার উদ্যোগ নেওয়ার প্রয়োজন নেই।’
তার দাবি, আওয়ামী লীগ চায় বিএনপি ‘একটি শক্তিশালী দল’ হিসেবে টিকে থাকুক, ‘গণতন্ত্রের অভিযাত্রাকে অব্যাহত’ রাখার ড়্গেত্রে অবদান রাখুক।
‘ছোটখাটো কিছু ঁ

বিছিন্ন ঘটনা’ ঘটলেও উপজেলা পরিষদ নির্বাচন শানিত্মপূর্ণভাবে হচ্ছে দাবি করে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘ভোটার উপসি’তি নিয়ে প্রশ্ন তোলা হচ্ছে। বিএনপি এই নির্বাচনে অংশ নিলে ভোটার উপসি’তি আরও ভালো হত। কিন’ এ পর্যনত্ম যে ভোটার উপসি’তি, আমি মনে করি এটি অত্যনত্ম সনেত্মাষজনক।’ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের প্রথম ধাপে ৪৩ শতাংশ, দ্বিতীয় ধাপে ৪১ শতাংশ এবং রোববার তৃতীয় ধাপে ৪০ শতাংশের বেশি ভোট পড়ার তথ্য দেন তথ্যমন্ত্রী। তিনি বলেন, ১৯৫৪ সালে বাঙালির দিক পরিবর্তনের রাজনীতির সময় যুক্তফ্রন্টের নির্বাচনে ভোটার উপসি’তি ছিল ৩৭ শতাংশ। এমনকি পশ্চিমবঙ্গে স’ানীয় সরকার নির্বাচনে ৩০ শতাংশ আসনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় প্রার্থী নির্বাচিত হয়। সেদিক থেকে বাংলাদেশের উপজেলা নির্বাচনের পরিসি’তি ‘যথেষ্ট সনেত্মাষজনক’ বলে দার ভাষ্য।
হাছান মাহমুদ বলেন, ‘বিএনপি যেভাবে নির্বাচন থেকে পালিয়ে বেড়াচ্ছে, এভাবে পালাতে পালাতে তাদের এক সময় রাজনীতি থেকেও পালিয়ে যেতে হয় কি না সে আশঙ্কা দেখা দিচ্ছে।’