এয়ার সার্ভিস এগ্রিমেন্টের রিভিউ চায় ভারত

বাংলা ট্রিবিউন

বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে ১৯৭৮ সালে স্বাক্ষরিত এয়ার সার্ভিস এগ্রিমেন্টের (এএসএ) রিভিউ চায় ভারত। দু’দেশের মধ্যে আকাশপথে যোগাযোগ বৃদ্ধি পাওয়ায় বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ে এ প্রস্তাব দিয়েছেন বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতের হাইকমিশনার হর্ষবর্ধন শ্রিংলা। গতকাল রবিবার সকালে পর্যটনমন্ত্রী রাশেদ খান মেননের সঙ্গে সচিবালয়ে অনুষ্ঠিত বৈঠকে ভারতীয় হাইকমিশনার এ প্রস্তাব দেন।
এয়ার সার্ভিস এগ্রিমেন্ট (এএসএ) রিভিউ প্রসঙ্গে হাইকমিশনার মন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করলে মন্ত্রী এ ব্যাপারে পদক্ষেপ নেওয়ার আশ্বাস জানান। পাশাপাশি বৈঠকে ঢাকা-গৌহাটি-বাগডোগরা রুটে দ্রুত বিমান যোগাযোগ শুরুর ওপর গুরুত্বারোপ করা হয়।
এছাড়া, খান জাহান আলী বিমান বন্দর নির্মাণ ও সৈয়দপুর বিমান বন্দরে বিনিয়োগের আগ্রহ প্রকাশ করেন ভারতীয় হাইকমিশনার। হর্ষবর্ধন শ্রিংলা বলেন, ‘এর মাধ্যমে আকাশ ও সমুদ্রপথে বিনিয়োগ, বাণিজ্য ও পর্যটনে নতুন মাত্রা যোগ করবে।’
বৈঠকে বলা হয়, ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চলের সঙ্গে বিনিয়োগ ও বাণিজ্যে বাংলাদেশের রয়েছে বিপুল সম্ভাবনা। এ সম্ভাবনা কাজে লাগিয়ে দু’দেশই লাভবান হতে পারে। এ সময় হাইকমিশনার মনিপুরের ইম্পলে অনুষ্ঠিতব্য ‘নর্থ ইস্ট সামিটে’র বিষয়ে মন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনা করেন।
মন্ত্রী বিভিন্ন সীমান্ত পয়েন্ট বিশেষ করে পেট্রাপোল সীমান্তে সিএন্ডএফ এজেন্ট ও মাল্টিপল ভিসা হোল্ডারদের ক্ষেত্রে সৃষ্ট জটিলতা দ্রুত সময়ে নিরসনের বিষয়টি উল্লেখ করেন। জবাবে দ্রুততম সময়ের মধ্যে এর সুরাহা হবে বলে আশ্বাস দেন ভারতীয় হাইকমিশনার।