এক রাতে চার পুরস্কার লেডি গাগার

সুপ্রভাত ডেস্ক

লস এঞ্জেলেসের স্টেপেলস সেন্টারহলে মেয়ের সঙ্গে বসে সঙ্গীতে লেডি গাগা-র বিশ্বজয় দেখলেন এরআর রহমান। ‘স্লামডগ মিলেনিয়ার’ এর জন্য ২০০৯ সালে দুটি গ্র্যামি এবং অস্কারজয়ী সঙ্গীতপরিচালক এদিন পরে এসেছিলেন ধূসর-কালো স্যুট। তার কিশোরীকন্যা রহিমা অবশ্য পুরো কালো পোশাকের সঙ্গে কালো পাথরের ঝুমকো পরেছিল। লন্ডন প্রবাসী সঙ্গীত পরিচালক প্রশান্ত মিস্ত্রি এবং আমেরিকা প্রবাসী সঙ্গীত পরিচালক ফাগুনি শাহ এবং সতনম কৌরের সঙ্গে এদিন অনুষ্ঠানের দর্শক হিসেবে গিয়েছিলেন রহমান এবং রহিমা। সতনমরাও বিভিন্ন বিভাগে মনোনীত ছিলেন। তবে তারা কেউ জেতেননি। জিতেছেন লেডি গাগা। গাগার এই বিশ্বজয় তার মেয়েকে অনুপ্রাণিত করবে বলেই মনে করছেন রহমান। এদিন দুই মহাদেশে এক রাতে চারটে পুরস্কার জিতে চোখের পানি বাঁধ মানল না লেডি গাগার। লন্ডনে আয়োজিত ব্রিটিশ চলচ্চিত্র সংগঠন-বাফটা এবং লস এঞ্জেলেসে আয়োজিত সঙ্গীত জগতের সেরা পুরস্কার গ্র্যামি, একইসঙ্গে রবিবার রাতে অনুষ্ঠিত হয়েছিল। দুটি অনুষ্ঠানেই ৩২ বছরের গায়িকার জয়জয়কার। সহকর্মী, বন্ধু, পরিবার, শুভানুধ্যায়ী এবং অনুরাগীদের টুইটারে ধন্যবাদ দিয়ে গাগা বলেছেন, একইসঙ্গে বাফটা আর গ্র্যামি জয় তাঁর কাছে সারা বিশ্বজয়ের সমান। এটা তাঁর পরিবারের পক্ষেও অনেক বড় সম্মান। লস এঞ্জেলেসে থাকার জন্য লন্ডনে যেতে না পারায় বাফটা কর্তৃপক্ষের কাছে ক্ষমাও চেয়েছেন গাগা। ‘দি স্টার ইজ বর্ন’ ছবির জন্যই তিনটি দুটি গ্র্যামি এবং একটি বাফটা পেয়েছেন গাগা। ওই ছবির গান ‘শ্যালো’র জন্য বাফটায় সেরা ওরিজিনাল স্কোর এবং গ্র্যামিতে সেরা দ্বৈত পপ-গ্রুপ পারফর্ম্যান্স বিভাগসহ অভিনেতা ব্র্যাডলি কুপারের সঙ্গে পুরস্কার জিতেছেন গাগা। এছাড়া ভিক্যুয়াল মিডিয়ার সেরা গান বিভাগেও ‘শ্যালো’র জন্য ব্র্যাডলি এবং গাগা সেরার পুরস্কার জিতেছেন। ‘জোয়ান’ অ্যালবামে ‘হোয়্যার ডু ইউ থিংক’ গানের জন্য সেরা পপ সোলো বিভাগে গ্র্যামি জেতেন গাগা। খবর পরিবর্তন’র।