একমাত্র তুমিই পিতা

খালেদ হামিদী

মাতৃবিয়োগের পর মোচার আকারে তৈরি
কলাপাতার আধারে ভাত, তরিতরকারি কি
মাছেরও রেসিপি ঢেলে, স্বজনের পরামর্শে,
যে রাখে পথের ধারে, অদৃশ্য চলিষ্ণুতায়
জননী মেটাবে ক্ষুধা, এমন বিশ্বাসে, তারই
অনুসরণে আমি তো ভুলেও দেইনি ভোগ
কারুরই স্মরণে। তবু কি চেয়ে, অপ্রাপ্তিযোগে
হেঁটে যাও হে জনক, দেখে নিষ্পলক কভু
আমাকেও! শ্মশান কি গোর ঘেঁষে এগিয়েও
দাঁড়াও নদীর কূলে? প্রয়াত মায়ের জন্যে
ওদিকে পারের কড়ি মোচাভাতে দিলে কেউ,
তক্ষুনি মাছের ঝাঁক জলের কিনারে এসে
কী যেন তোমাকে বলে আর পক্ষী সব উড়ে
জানায় কুর্নিশ। আমি তোমাকে কি দিতে পারি
অপূর্ণ কৃতির পদ্য? না। শত্রুর বিপরীতে
আমার একান্ত শব্দ বয়ে যায় ভূমি জুড়ে
তোমারই রক্তের দিকে। হারানো মাতারও যতো
স্মৃতির সমান্তরালে, নির্ভোগ কে চিরশোভমান?
একমাত্র তুমিই পিতা, শেখ মুজিবুর রহমান।