উত্তর জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের বিক্ষোভ সমাবেশ

গণতান্ত্রিক আন্দোলন দাবিয়ে রাখা যাবে না ॥

বিজ্ঞপ্তি
Untitled-2

মামলা, হামলা, পুলিশি নির্যাতন ও হয়রানি করে জাতীয়তাবাদী দলের গণতান্ত্রিক আন্দোলন দাবিয়ে রাখা যাবে না । জাতীয়তাবাদী স্বেচ্ছাসেবক দল চট্টগ্রাম উত্তর জেলা কর্তৃক আয়োজিত গতকাল নাসিমন ভবনের দলীয় কার্যালয়ে বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারির প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল পরবর্তী সমাবেশে নেতৃবৃন্দ উপরের মন্তব্য করেন।
উত্তর জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের যুগ্ম আহ্বায়ক মো. সেলিম চেয়ারম্যানের সভাপতিত্বে এবং যুগ্ম আহ্বায়ক মো মোরছালিনের সঞ্চালনায় সমাবেশে অতিথির বক্তব্য রাখেন উত্তর জেলা বিএনপির সাবেক সহ-সভাপতি এম.এ. হালিম, এম. নাজিম উদ্দিন, ইসহাক কাদের চৌধুরী, সাবেক যুগ্ম সম্পাদক আবু তাহের, সৈয়দ মো. নাছির উদ্দিন, মিরসরাই উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নুরুল আমিন, উত্তর জেলা যুবদলের সভাপতি কাজী সালাউদ্দিন, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের পক্ষ থেকে বক্তব্য রাখেন যুগ্ম আহ্বায়ক মো. ইউসুফ খান, ফটিকছড়ি থানার আহ্বায়ক আবু তৈয়ব, সীতাকুন্ড থানার সভাপতি সোলাইমান রাজ, হাটহাজারীর যুগ্ম আহ্বায়ক মো. জাহাঙ্গীর আলম, মো. করিম, রাজু, টিকলু তালুকদার, মো. ইকবাল, হেলাল উদ্দিন, লিটন, মো. ইসমাইল, হাটহাজারী ছাত্রদল নেতা মো. টিটু, জনি, মো. তারেক ও শওকত প্রমুখ নেতৃবৃন্দ।
নেতৃবৃন্দ বলেন, সরকার নির্বাচনের সুষ্ঠু পরিবেশ সৃষ্টি না করে নির্বাচনকে বিতর্কিত করা এবং বিএনপি নেতৃবৃন্দদের নির্বাচন থেকে সরিয়ে রাখার জন্য পরিকল্পিতভাবে ষড়যন্ত্র চালিয়ে যাচ্ছে। তারই ধারাবাহিকতায় বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে অহেতুক মামলা এবং গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করা হয়েছে। উল্লেখ্য, উত্তর জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের বিক্ষোভ মিছিলে পুলিশি বাধা দিয়ে ব্যানার কেড়ে নেওয়ার যে ঘৃণ্য চেষ্টা করেছে, এটা কোনো গণতান্ত্রিক আচরণের মধ্যে পড়ে না বলে নেতৃবৃন্দ মন্তব্য করেন।