উচ্চশিক্ষার প্রসারে সিআইইউর সঙ্গে কাজ করবে কেইপিজেড সিউল ইউনিভার্সিটি

বিজ্ঞপ্তি

চট্টগ্রামের উচ্চশিক্ষার প্রসারে চিটাগং ইন্ডিপেন্ডেন্ট ইউনিভার্সিটির (সিআইইউর) সঙ্গে যৌথভাবে সহযোগিতামূলক কার্যক্রম পরিচালনায় আগ্রহ প্রকাশ করেছে বাংলাদেশে অবসি’ত কোরিয়ান রপ্তানি প্রক্রিয়াকরণ অঞ্চল-কেইপিজেড ও কোরিয়ার খ্যাতনামা বিশ্ববিদ্যালয় সিউল ন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি। গত ১১ই ফেব্রুয়ারি দুপুরে এই উপলক্ষে কেইপিজেডে সিআইইউর সঙ্গে অপর দুই প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তাদের মতবিনিময় বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। এই সময় সিআইইউর ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য স্কলারশিপের ব্যবস’া, শিক্ষকদের উচ্চতর ডিগ্রি লাভের সুযোগ প্রদান, নিয়মিতভাবে ওয়ার্কশপ-সেমিনারের আয়োজন করাসহ এই বিশ্ববিদ্যালয়কে একধাপ এগিয়ে নিয়ে যেতে নানা বিষয় উঠে আসে বৈঠকে। এর আগে সকালে সিআইইউর উপাচার্য অধ্যাপক ড. মাহফুজুল হক চৌধুরীর নেতৃত্বে শিক্ষকদের একটি প্রতিনিধি দল কেইপিজেড এলাকা পরিদর্শন করেন। এই সময় তাদের স্বাগত জানান প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান কিহাক সাং।
উপসি’ত ছিলেন বাংলাদেশ এন্টারপ্রাইজ ইনস্টিটিটের প্রেসিডেন্ট ফারুক সোবহান, কোরিয়ান কেইপিজেড করপোরেশন বাংলাদেশ লিমিটেডের ইয়ংওয়ানের প্রেসিডেন্ট জাহাঙ্গীর সাদাত, সিআইইউর প্রক্টর অধ্যাপক ড. নুরুল আবসার নাহিদ, বিজনেস স্কুলের ডিন ড. মোহাম্মদ নাঈম আবদুল্লাহ, সহযোগী অধ্যাপক ড. সৈয়দ মনজুর কাদের, স্কুল অব সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের সহযোগী অধ্যাপক ড. আসিফ ইকবাল, ড. মোহাম্মদ রেজাউল করিম প্রমুখ।
কেইপিজেডের চেয়ারম্যান কিহাক সাং সিআইইউর সঙ্গে যৌথভাবে কাজ করলে চট্টগ্রামের উচ্চশিক্ষা নতুন মাত্রা পাবে বলে মন্তব্য করেন। তিনি বলেন, আমরা বরাবরই কর্মমুখী শিক্ষার প্রতি গুরুত্বারোপ করে আসছি। এই বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের আন্তর্জাতিকমানের শিক্ষায় আরও চৌকষ করে গড়ে তুলতে নানামুখী পরিকল্পনা আমাদের রয়েছে।
তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশের ভবিষ্যৎ উন্নয়নে অবদান রাখার জন্য কেইপিজেড সবসময় প্রতিজ্ঞাবদ্ধ। আর এই স্বপ্ন বাস্তবায়নে সিআইইউর মেধাবীদের এগিয়ে আসতে হবে।
চট্টগ্রামের উচ্চশিক্ষায় কেইপিজেড ও কোরিয়ার খ্যাতনামা বিশ্ববিদ্যালয় সিউল ন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির যৌথভাবে কাজ করার আগ্রহ এই অঞ্চলে কর্মমুখী শিক্ষা বাস্তবায়নে বড় ভূমিকা রাখবে বলে উল্লেখ করেন সিআইইউর উপাচার্য অধ্যাপক ড. মাহফুজুল হক চৌধুরী।