উখিয়া হাসপাতালের জায়গা দখল করে স্থাপনা নির্মাণ

জনস্বার্থে নির্মাণাধীন উখিয়া উপস্বাস’্য কেন্দ্রের পরিত্যক্ত এলাকায় পাবলিক টয়লেট নির্মাণে বাধা দেয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে।
হাসপাতালের জায়গা দখলকারী একটি চক্র নির্মাণাধীন টয়লেটের জায়গা রাতারাতি দখল করে অবৈধ স’াপনা নির্মাণ করার ফলে পাবলিক টয়লেট চালু করা সম্ভব হচ্ছে না বলে জানিয়ে উপজেলা প্রশাসন ও উপজেলা স্বাস’্য কর্মকর্তা বরাবরে পৃথক অভিযোগ করেছেন টয়লেট নির্মাণে দায়িত্বশীল ঠিকাদার। জানা গেছে, উপজেলা পরিষদের মাসিক সমন্বয় সভায় উখিয়া উপস্বাস’্য কেন্দ্র সংলগ্ন এলাকায় একটি পাবলিক টয়লেট স’াপনের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। উপজেলা স্বাস’্য কর্মকর্তার অনুমতিক্রমে ইতোমধ্যে পাবলিক টয়লেটটি নির্মাণ করা হলেও আনুষঙ্গিক প্রক্রিয়া সম্পন্ন না হওয়ায় পাবলিক টয়লেটটি চালু করা সম্ভব হয়নি।
পাবলিক টয়লেট নির্মাণে দায়িত্বশীল ঠিকাদার উপজেলা ইমাম সমিতির সভাপতি মাওলানা জাফর আলম জানান, পাবলিক টয়লেট নির্মাণ কাজ সম্পন্ন হওয়ার পথে স’ানীয় দন্ত চিকিৎসক মাহবুবুর রহমান রাতারাতি টয়লেটের পার্শ্বস’ হাসপাতালের জায়গা দখল করে অবৈধভাবে স’াপনা নির্মাণ করেন।
যে কারণে পাবলিক টয়লেট চালু করা সম্ভব হচ্ছে না। তিনি জানান, বিষয়টি উপজেলা স্বাস’্য কর্মকর্তা ও উপস্বাস’্য কেন্দ্র কর্মকর্তাকে জানানো হয়েছে। জানতে চাওয়া হলে উপস্বাস’্য কেন্দ্রের দায়িত্বশীল কর্মকর্তা ডা. হাসান জানান, দন্ত চিকিৎসক মাহবুবুর রহমান প্রশাসনের বিধি নিষেধ উপেক্ষা করে ইতোপূর্বেও হাসপাতালের জায়গা দখল করে বেশ কয়েকটি স’াপনা নির্মাণ করেন। ইতোমধ্যেই পাবলিক টয়লেট নির্মাণকালে রাতারাতি তার দখলবাজি অব্যাহত রাখায় টয়লেটটি চালু করা সম্ভব হচ্ছে না। তিনি জানান, এ ব্যাপারে আইনগত ব্যবস’া গ্রহণের জন্য বিষয়টি জেলা সিভিল সার্জন বরাবরে লিখিতভাবে জানানো হয়েছে।

আপনার মন্তব্য লিখুন