উখিয়ায় রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ত্রাণের চাল নিয়ে সংঘর্ষ, আটক ৬

নিজস্ব প্রতিনিধি, উখিয়া

উখিয়ায় রোহিঙ্গা ক্যাম্পগুলোতে ত্রাণের চাল ক্রয়ের সিন্ডিকেটের সদস্যরা বেপরোয়া হয়ে উঠেছে। স’ানীয় এসব সিন্ডিকেট রোহিঙ্গাদের কাছ থেকে কমমূল্যে জোর করে চাল ক্রয় করতে গেলে দু’পড়্গের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। গতকাল মঙ্গলবার বেলা ১২টার দিকে কুতুপালং ক্যাম্প ৭ এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।
এসময় সেনা সদস্যরা ৬ জনকে আটক করে উখিয়া থানা পুলিশের নিকট সোপর্দ করেছে। আটককৃতরা হচ্ছে, রাজাপালং ইউনিয়নের দরগাহবিল গ্রামের শামশুল আলমের ছেলে মাহবুবুল আলম (৩০), কুতুপালং পূর্ব পাড়া গ্রামের মো. শফির ছেলে মো. শাহ জান (৩০), একই গ্রামের মো. ছৈয়দের ছেলে আকতার (২৮), কুতুপালং ক্যাম্প ৭ বি ১৬ বস্নকের বাসিন্দা আবুল কাশেমের ছেলে আব্দুর রহিম (২২), আবু ছিদ্দিক (৩০) ও লাল মিয়ার ছেলে শহিদুল আমিন (২৮)।
প্রত্যড়্গদর্শীরা জানান, উখিয়ায় আশ্রিত ২৩টি রোহিঙ্গা ক্যাম্পে প্রায় শতাধিক চাল ক্রয় সিন্ডিকেটের স’ানীয় চক্র বেশ কিছু দিন ধরে রোহিঙ্গা ক্যাম্পে প্রভাব বিসত্মারের মাধ্যমে রোহিঙ্গাদের দেয়া ত্রাণের চাল কম দামে জোর করে আদায় করে আসছিল। ইতিপূর্বেও বালুখালী পান বাজার এলাকায় ত্রাণের চাল ক্রয়ের ঘটনা নিয়ে দু’পড়্গের মধ্যে সংঘর্ষ শুরম্ন হলে পুলিশ পরিসি’তি নিয়ন্ত্রণে আনে। এসময় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. নিকারম্নজ্জামান চৌধুরী রোহিঙ্গাদের দেয়া ত্রাণের চাল ক্রয় না করার জন্য স’ানীয়দের নিষেধ করলেও তা মানা হচ্ছে না বলে রোহিঙ্গা নেতৃবৃন্দের অভিযোগ।
উখিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আবুল খায়ের জানান, আটককৃতদের ভ্রাম্যমাণ আদালতে সোপর্দ করার প্রস’তি নেওয়া হচ্ছে।