মামলা-গ্রেফতার

ইসির হস্তক্ষেপ চেয়ে বিএনপির চিঠি

সুপ্রভাত ডেস্ক

নয়া পল্টনে মনোনয়ন ফরম বিক্রির কার্যক্রমের মধ্যে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষের ঘটনায় দায়ের করা মামলাগুলোকে ‘বানোয়াট’ আখ্যায়িত করে নেতাকর্মীদের গ্রেফতারের ঘটনায় নির্বাচন কমিশনের হস্তক্ষেপ চেয়েছে বিএনপি। এ বিষয়ে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর স্বাক্ষরিত একটি চিঠি গতকাল সকালে আগারগাঁওয়ে নির্বাচন ভবনে পৌঁছে দেন দলটির কেন্দ্রীয় মামলা ও তথ্য সংরক্ষণ কর্মকর্তা মো. সালাউদ্দিন খান। খবর বিডিনিউজের।
গত ৮ নভেম্বর নির্বাচনের পুনঃতফসিলের পর সারা দেশে ৪৭২ জন নেতাকর্মীকে ‘মিথ্যা ও গায়েবি মামলায়’ গ্রেফতার করা হয়েছে বলে চিঠিতে দাবি করা হয়। নাম-পরিচয়সহ গ্রেফতার নেতাকর্মীদের একটি তালিকাও চিঠির সঙ্গে দেওয়া হয়।
প্রধান নির্বাচন কমিশনারকে উদ্দেশ করে লেখা ওই চিঠিতে মির্জা ফখরুল বলেছেন, ‘বিএনপির পক্ষ থেকে নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে দায়ের করা বানোয়াট মামলা প্রত্যাহারসহ নিঃশর্ত মুক্তি দিতে প্রয়োজনীয় ব্যবস’া গ্রহণের জন্য আপনার হস্তক্ষেপ কামনা করছি।’
গত মঙ্গলবার দুপুরে নয়া পল্টনে বিএনপি কার্যালয়ে মনোনয়ন কার্যক্রম চলার মধ্যেই পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে জড়ায় দলটির নেতাকর্মীরা। সে সময় পুলিশের দুটি গাড়িতে আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয়।
ওই ঘটনায় পুলিশ পল্টন থানায় তিনটি মামলা দায়ের করে বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য নিপুন রায় চৌধুরীসহ ৬৫ জনকে গ্রেফতার করেছে। তাদের মধ্যে ৩৮ জনকে রিমান্ডেও নেওয়া হয়েছে।
বিএনপি নেতা মির্জা আব্বাস, রুহুল কবির রিজভী, আফরোজা আব্বাস, নবী উল্লাহ নবী, আকতারুজ্জামান ও কফিল উদ্দিনসহ সে সময় দলীয় কার্যালয়ে উপসি’ত কেন্দ্রীয় নেতাদের আসামি করা হয়েছে এসব মামলায়।
বিএনপি মহাসচিবের চিঠিতে বলা হয়েছে, ‘এ ধরনের গ্রেফতার ও মিথ্যা মামলা দিয়ে নেতাকর্মীদের গ্রেফতার ও হয়রানি করলে নির্বাচন প্রশ্নবিদ্ধ হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। এতে আপনাদের নিরপেক্ষতা নিয়েও জনগণের মনে সন্দেহ দেখা দিয়েছে।’
পল্টনের ঘটনার পর পুলিশ বলেছিল, ফরম তুলতে এসে বিএনপি নেতাকর্মীরা সড়কে প্রতিবন্ধকতা তৈরি করে।তারা বিনা উসকানিতে পুলিশের ওপর হামলা চালায়। বিএনপি নেতা মির্জা ফখরুলের চিঠিতে উল্টো পুলিশের বিরুদ্ধে নির্বাচনী ফরম ছিঁড়ে ফেলার অভিযোগ আনা হয়েছে।
চিঠিতে বলা হয়েছে, ‘আইনশৃঙ্খলা বাহিনী আজ চার দিন ধরে নয়াপল্টনের আশপাশে যত লিঙ্ক রোড আছে সেখানে পাহারা বসিয়ে বিএনপি কার্যালয়ের দিকে আগমন ও প্রস’ানরত নেতাকর্মীদের তল্লাশি করছে। এমনকি আইনশৃঙ্খলা বাহিনী মনোনয়ন ফরম কেড়ে নিয়ে ছিঁড়ে ফেলেছে।’