ইউনিভার্সিটি অব ক্রিয়েটিভ টেকনোলজির শিক্ষার্থী আটক হিযবুত তাহরীরের তৎপরতা

নিজস্ব প্রতিবেদক

নগরীর চান্দগাঁও এলাকার বেসরকারি ইউনিভার্সিটি অব টেকনোলজিতে নিষিদ্ধঘোষিত জঙ্গি সংগঠন হিযবুত তাহরীরের তৎপরতার তথ্য পেয়েছে চট্টগ্রাম মেট্টোপলিটন পুলিশের কাউন্টার টেররিজম ইউনিট।
রোববার রাত সাড়ে ৮টার দিকে নগরীর কোতোয়ালী থানাধীন চার্চ রোড এলাকা থেকে সাবকাত আহমেদ (২১) নামে হিযুবত তাহরীরের এক নেতাকে আটক করে কাউন্টার টেররিজম ইউনিট।
কাউন্টার টেররিজম ইউনিট জানিয়েছে, কয়েকমাস আগে ইউনিভার্সিটি অব টেকনোলজিতে হিযবুত তাহরীরের তৎপরতার তথ্য পেয়েছে তারা। প্রতিষ্ঠানটির অনেক শিড়্গক ও শিড়্গার্থী নিষিদ্ধ ঘোষিত এ জঙ্গি সংগঠনের সাথে সম্পৃক্ততার তথ্য পায় তারা। এরপর থেকে প্রতিষ্ঠানটিতে নজরদারি করে আসছিল জঙ্গি দমনে গঠিত এই ইউনিটটি। নজরদারির অংশ হিসেবে রোববার রাতে অভিযানে আটক হয় ইউনিভার্সিটি অব ক্রিয়েটিভ টেকনোলজির মেকানিকেল ইঞ্জিনিয়ার বিভাগের বিএসসি অনার্সের শিড়্গার্থী সাবকাত আহমেদ। পুলিশের হাতে আটকের পর সে নিজেকে চট্টগ্রামের বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় শাখার আমীর বলে জানিয়েছে।
সাবকাতের কাছ থেকে হিযুবত
তাহরীরের বিভিন্ন উস্কানিমূলক পোস্টার ও লিফলেট উদ্ধার করে পুলিশ।
কাউন্টার টেররিজম ইউনিট জানিয়েছে, সাবকাত চট্টগ্রাম সেনানিবাসে অবসি’ত ক্যান্টনমেন্ট ইংলিশ স্কুল অ্যান্ড কলেজে ক্লাস ওয়ান থেকে ইন্টারমিডিয়েট পর্যনত্ম পড়াশুনা করেছে।
অভিযানে নেতৃত্ব দেওয়া কাউন্টার টেররিজম ইউনিটের পরিদর্শক আফতাব হোসেন সুপ্রভাতকে জানান, ‘রোববার রাতে কোতোয়ালী মোড় মসজিদের দড়্গিণ পাশে সাবকাত আহমেদসহ আরো ৫-৬ জন যুবক জঙ্গি ও নাশকতামূলক কর্মকা-ের প্রস’তি নিচ্ছিল। এসময় গোপন সূত্রে খবর পেয়ে আমরা সেখানে হানা দিই। তখন একটি ফার্মেসির সামনে থেকে কাঁধে ব্যাগপ্যাক থাকা অবস’ায় আটক হয় সাবকাত। তবে তার সঙ্গে থাকা ৫-৬ যুবক পালিয়ে যায়।’
আফতাব হোসেন জানান, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে সাবকাত পালিয়ে যাওয়া ৫-৬ যুবক ওই শিড়্গা প্রতিষ্ঠানের তার সহপাঠী বলে জানিয়েছে। তাদের গ্রেফতারে আমাদের অভিযান চলছে।
প্রশ্নের জবাবে কাউন্টার টেররিজম ইউনিটের এ পরিদর্শক বলেন, ‘আমরা গত কয়েকমাস ধরে ইউনিভার্সিটি অব ক্রিয়েটিভ টেকনোলজিতে হিযবুত তাহরীরের তৎপরতার তথ্য পেয়ে নজরদারি করে আসছি। শিড়্গা প্রতিষ্ঠানটির অনেক শিড়্গক-শিড়্গার্থী এ জঙ্গি সংগঠনের সাথে সম্পৃক্ত থাকতে পারে।’
আফতাব হোসেন জানান, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে সাবকাত নিজেকে জঙ্গি নয় বলে দাবি করেছে। ’
উলেস্নখ্য, ২০০৯ সালের ১৬ মার্চ জঙ্গি সংগঠন হিসেবে চিহ্নিত করে হিযবুত তাহরীরকে নিষিদ্ধ করে সরকার।