মুনিরীয়া যুব তবলীগের এশায়াত মাহফিল

‘আলোকিত বিশ্ব গড়ার জন্য নবীজি (দ.) প্রেরিত হয়েছেন’

কাগতিয়া আলীয়া গাউছুল আজম দরবার শরীফের মহান মোর্শেদ, আওলাদে রাসূল, হযরতুলহাজ শাহ্‌ছুফি অধ্যক্ষ আল্লামা ছৈয়্যদ মুহাম্মদ মুনির উল্লাহ্‌ আহমদী (ম.জি.আ) বলেছেন, আইয়্যামে জাহিলিয়াতের অন্ধকার জীবন থেকে মানবগোষ্ঠীকে মুক্ত করে আলোকিত বিশ্ব গড়ার জন্য আল্লাহ তা’য়ালা তাঁর হাবীব (দ.) কে পৃথিবীতে প্রেরণ করেছেন। আল্লাহ তা’য়ালার মহাবাণী ও তাঁর প্রিয়নবী (দ.) সুন্দরতম আদর্শে প্রতিষ্ঠা করেছিলেন এক অনন্য সুন্দর পৃথিবী। তিনি মানবসৃষ্টির উদ্দেশ্য বাস্তবায়নে অনুপম আদর্শ রেখে গেলেন বিশ্ববাসির জন্য। এ আদর্শ যখন মুসলিম জাতির, বিশেষ করে মুসলিম যুব সমাজ ভুলে যেতে শুরু করলো ঠিক তখনই কাগতিয়া আলীয়া গাউছুল আজম দরবারের প্রতিষ্ঠাতা খলিলুল্লাহ, আওলাদে মোস্তফা, খলিফায়ে রাসূল, হযরত শায়খ ছৈয়্যদ গাউছুল আজম (রা.) গাউছিয়্যতের কন্ঠে ডাক দিলেন। যার ফলশ্রুতিতে বিশ্বব্যাপী এ দরবারের অনুসারীরা পালন করছেন পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (দ.) মাহফিল।
তিনি বলেন, মুহাব্বত দুই প্রকার, স্বভাবগত ভালবাসা ও অর্জিত ভালবাসা। সন্তান-সন্ততি, পরিবার-পরিজন, আত্মীয়-স্বজন এর ভালবাসা হল স্বভাবগত ভালবাসা। আর রাসুল প্রেম হল অর্জিত ভালবাসা, যা গাউছুল আজমের তাওয়াজ্জুহর বদৌলতে অর্জন করা সম্ভব।
গত ৬ ডিসেম্বর পবিত্র জশনে জুলুছে ঈদে মিলাদুন্নবী (দ.) উদযাপন উপলক্ষে মুনিরীয়া যুব তবলীগ কমিটি বাংলাদেশ সংযুক্ত আরব আমিরাতের শাখা সমূহের উদ্যোগে দুবাইয়ের আল মারাবিয়া স্ট্রিট, ইভেন্ট এরিনায় আয়োজিত এশায়াত মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।
আহবায়ক আলহাজ নূর মুহাম্মদ সিকদারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মাহফিলে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সংগঠনের আমিরাত ওলামা পরিষদের সদস্য মাওলানা মাহাবুবুল আলম বোগদাদী, জাহাঙ্গীর আলম প্রমুখ।
মাহফিল শেষে বিশেষ মুনাজাত পরিচালনা করা হয়। বিজ্ঞপ্তি