অস্ত্র উদ্ধারে পুকুরে সেঁচ ধনিয়ালাপাড়ায়

নিজস্ব প্রতিবেদক

নগরীর ডবলমুরিং থানাধীন ধনিয়ালাপাড়ায় একটি পুকুর থেকে অস্ত্র উদ্ধারে পানি সেঁচ করছে পুলিশ। গতরাত সাড়ে ১১টায় এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত ডিটি রোড ছোট মসজিদের পেছনের পুকুরটির পানি অপসারণের কাজ করছিলো পুলিশ।
শুক্রবার রাতে এই পুকুরপাড় থেকে পাঁচটি কিরিচসহ ১৮ জনকে আটক করে পুলিশ। তারা সবাই ধনিয়ালাপাড়ার স’ানীয় বাসিন্দা। তারা পুলিশের হাতে ধরা পড়ার আগে কিছু কিরিচ ও অস্ত্র পুকুরে ফেলে দিয়েছে বলে স’ানীয় সূত্রে জানতে পারে পুলিশ। এসব অস্ত্র উদ্ধারে পুলিশ পুকুরটির পানি সেঁচের উদ্যোগ নেয়।
পুলিশ জানায়, ধনিয়ালাপাড়া ও মোগলটুলী এলাকার দুটি পক্ষের মধ্যে কোনো কারণে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে দ্বন্দ্ব চলছিল। এর জের ধরে এক পক্ষের ১৮ জন ব্যক্তি এসব অস্ত্র বহন করছিলো। পুলিশ গোপন সূত্রে খবর পেয়ে সেখানে হানা দিয়ে অস্ত্রসহ তাদের আটক করে।
কিন’ তারা কাকে, কোথায় হামলা করার উদ্দেশ্যে এসব অস্ত্র নিয়ে পুকুরপাড়ে অবস’ান নেয় সে বিষয়ে পুলিশের কাছে মুখ খোলেনি বলে জানান ডবলমুরিং থানার সেকেন্ড অফিসার নুরুল ইসলাম।
তিনি সুপ্রভাতকে জানান, আটক ১৮ ব্যক্তি একটি জন্মদিনের অনুষ্ঠানে অংশ নিতে এসে পুকুরপাড়ে জমায়েত হয়েছিল বলে পুলিশের কাছে দাবি করে।
গতকাল বিকেল সাড়ে ৪টা থেকে রাত ১২টা পর্যন্ত পুলিশের উপসি’তিতে টানা সাড়ে ৭ ঘণ্টা ধরে পুকুরটির পানি সেঁচ করা হয়। পানি সেঁচের জন্য পুকুরপাড়ে আলো জ্বালিয়ে একসাথে চারটি বৈদ্যুতিক পাম্প ব্যবহার করা হয়। পুলিশের এ অভিযানের সময় পুকুর পাড়ে স’ানীয় কৌতূহলী লোকজন ভিড় করে।
ডবলমুরিং থানার ওসি একেএম মহিউদ্দিন সেলিম জানান, পুলিশের একটি টিম শুক্রবার রাতে অভিযান চালিয়ে পুকুরপাড় থেকে পাঁচটি কিরিচসহ ১৮ জনকে আটক করে। এসময় পুলিশ সদস্যদের অজান্তে আটককৃতরা কিছু অস্ত্র পুুকুরে ফেলে দেয়। এসব অস্ত্র উদ্ধারে পুকুরটির পানি সেঁচ করা হচ্ছে।
এদিকে আটক ১৮ জনকে অস্ত্র মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে গতকাল আদালতে সোপর্দ করে পুলিশ।