অর্ণব থেকে কোটি টাকার পোশাক জব্দ

নিজস্ব প্রতিবেদক
Customs-intelligence-seized

নগরীর কোতোয়ালী থানার দেওয়ানজী পুকুর পাড়ের অভিজাত শাড়ির দোকান অর্ণব স্টোরে অভিযান চালিয়েছে শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদফতর। সেখান থেকে শুল্ক ফাঁকিতে আনা বিদেশি বিপুল পরিমাণ শাড়িসহ বিভিন্ন পোশাক জব্দ করা হয়েছে।
গতকাল শুক্রবার সকাল ১০টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত র্যাব ও কোস্ট গার্ডের সহযোগিতায় এ অভিযান পরিচালিত হয়।
কোস্ট গার্ডের সহকারী গোয়েন্দা পরিচালক লে. কমান্ডার আব্দুল্লাহ আল মারুফ সুপ্রভাতকে জানান, দেওয়ানজী পুকুর পাড়ের রহমতগঞ্জ এলাকা হতে বৈধ কাগজপত্রবিহীন বিদেশি ১ হাজার ৩৭ পিস কাতান শাড়ি, ১০৮ পিস জর্জেট শাড়ি, ২৬৮ পিস পাঞ্জাবি, ৮৮ পিস লেহাঙ্গা, ৬৬ পিস শাল জব্দ করা হয়। জব্দকৃত মালামালের আনুমানিক বাজারমূল্য ১ কোটি ২০ লাখ ৮ হাজার টাকা। অভিযানে কোন অপরাধীকে আটক করা সম্ভব হয়নি। জব্দকৃত বিদেশি কাপড় যথাযথ কর্তৃপক্ষের নিকট হস্তান্তর প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।
এসব পোশাক কেন জব্দ করা হয়েছে জানতে চাইলে আব্দুল্লাহ আল মারুফ বলেন, ‘শুল্ক ফাঁকি দিয়ে এসব পোশাক আনা হয়েছে।
তবে এসব পোশাক কোথা থেকে আনা হয়েছে তা জানাতে পারেননি তিনি।
প্রায় এক দশকেরও বেশি সময় ধরে চালু থাকা অর্ণব স্টোর বিয়েসহ বিভিন্ন উৎসবের পোশাকের জন্য ক্রেতাদের কাছে সমাদৃত।
অর্ণব স্টোরের মালিক গোপাল কৃঞ্চ নন্দী সুপ্রভাত বাংলাদেশকে বলেন, ‘আমি পোশাকগুলো আমদানি করিনি। যারা আমদানি করেছে, তাদের থেকে আমি কিনেছি। এ সংক্রান্ত বৈধ কাগজপত্র আমরা তাদের দিয়েছি। তারা বিল অব এন্ট্রি চাচ্ছে। এটা আমদানিকারকদের কাছে থাকে। এই ডকুমেন্ট তো আমাদের কাছে নেই। তারা বলে এটা দেখাতে হবে। আমি সময় চাইলেও তারা দেননি। তাদেরকে বলেছি, আমদানিকারকেরা কাপড়গুলো বৈধভাবে এনেছেন কিনা দেখেন। বৈধভাবে আনলে আমার ক্রয় ও বিক্রয় করার অধিকার আছে। এই অভিযান উদ্দেশ্যপ্রণোদিত নাকি তারা বুঝেও না বুঝার ভান করছে; আমি বলতে পারছি না।