সাতকানিয়ায় বিজিবি কুচকাওয়াজে মহাপরিচালক

অরক্ষিত ১১০ কিলোমিটার সীমান্তে নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে

নিজস্ব প্রতিবেদক, বান্দরবান

সাতকানিয়ায় বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) ৮৯তম ব্যাচ রিক্রুটদের সমাপনী কুচকাওয়াজ বৃহস্পতিবার সকালে বাইতুল ইজ্জত বর্ডার গার্ড প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে সম্পন্ন হয়েছে। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন বিজিবি মহাপরিচালক মেজর জেনারেল আবুল হোসেন। তিনি বলেন, বাংলাদেশ-মিয়ানমারের ১১০ কিলোমিটার সীমান্ত এখনো অরক্ষিত। ওই অরক্ষিত সীমান্ত সুরক্ষায় বিজিবি নিরাপত্তা বাড়িয়েছে। নতুন আরো কয়েকটি ক্যাম্প নির্মাণ করা হবে। তিনি আরো বলেন, রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশ বন্ধে বিজিবি সীমান্ত অঞ্চলে সর্বদা সতর্কাবস’ায় রয়েছে। কিন’ সীমান্ত শতভাগ সিলগালা করা সম্ভব নয়। তবে ফাঁক-ফোকর দিয়ে যারা ইতোমধ্যে বাংলাদেশে ঢুকে পড়েছে, তাদেরও মিয়ানমারের পরিসি’তি স্বাভাবিক হলে ফেরত পাঠানো হবে। মিয়ানমারের সঙ্গে এ বিষয়ে আলাপ-আলোচনা চলছে।
বিজিবি জানায়, নতুন ৮৯তম ব্যাচ রিক্রুটদের মধ্যে ৫০১ জন পুরুষ এবং ৯৩ জন নারী রয়েছে। এদের মধ্যে শ্রেষ্ঠ নবীন সৈনিক সিপাহি বদিয়ার আলম এবং শ্রেষ্ঠ নারী সৈনিক সিপাহি স্মৃতি আক্তারকে সম্মাননা ক্রেস্ট দেয়া হয়।
এসময় উপসি’ত ছিলেন বর্ডার গার্ড প্রশিক্ষণ কেন্দ্র ও স্কুলের কমান্ড্যান্ট ব্রিগেডিয়ার জেনারেল একেএম সাইফুল ইসলাম, বান্দরবান ৬৯ রিজিয়ন কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মুহাম্মদ যুবায়ের সালেহীন, চট্টগ্রাম উত্তর-পশ্চিম রিজিয়ন ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শাহরীয়ার আহমেদ চৌধুরী, বান্দরবান বোমাং রাজা উ চ প্রু চৌধুরীসহ সামরিক-বেসামরিক উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

আপনার মন্তব্য লিখুন